লকডাউন প্রসঙ্গে যা বললেন সোনাক্ষী

5

২০২০ ও ২০২১ সালে ভারতে কভিড সংক্রমণ ও মৃত্যু ব্যাপকভাবে বাড়ায় দুই দফা লকডাউন দেওয়া হয় দেশটিতে। দীর্ঘ লকডাউনে সাধারণ মানুষ তো বটেই, ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় দেশটির চলচ্চিত্র ব্যবসাও। সম্প্রতি বক্স অফিস বিশ্লেষকরা হিসাব করে বলেছেন, করোনার কারণে কমপক্ষে ১৫০০ কোটি রুপির ব্যাবসায়িক ক্ষতি হয়েছে বলিউডে। এবারও ফের অমিক্রনের চোখ রাঙানিতে একের পর এক স্থগিত হচ্ছে নতুন ছবির মুক্তি, স্থগিত হচ্ছে শুটিং। ভারতে প্রতিদিন নতুন সংক্রমণের সংখ্যা তিন লাখ লাখ ছুঁইছুঁই। এমন পরিস্থিতিতে ফের লকডাউন আসছে বলে অনেকের আশঙ্কা। তবে বলিউড অভিনেত্রী সোনাক্ষী সিনহা অবশ্য আর লকডাউন চান না। তাঁর মতে, কেউই আরেকটি লকডাউনের ধকল সইতে পারবে না। ‘লকডাউনে চলচ্চিত্র জগৎ তো বটেই, সবারই ক্ষতি হয়েছে। চাকরি, পরিবার সব ক্ষেত্রে প্রভাব পড়েছে। সব মিলিয়ে আমরা আর লকডাউনের ধকল কাটিয়ে উঠতে পারব না। তাই কভিড যাতে না ছড়ায় সবারই উচিত সে বিষয়ে সতর্ক থাকা। পরিস্থিতির গুরুত্ব উপলব্ধি করা।’ এক দশকের ক্যারিয়ারে এমন অনেক ছবি সোনাক্ষী করেছেন, যেগুলো না করলেও পারতেন- বিষয়টি স্বীকার করেন খোদ অভিনেত্রীই। তাই গেল বছর থেকে চেষ্টা করছেন বিষয়ভিত্তিক বিভিন্ন ছবিতে কাজ করার। চেষ্টায় সফলও হন।

যুক্ত হন বেশ কয়েকটি সিনেমা ও সিরিজে। কিন্তু শুটিংয়ের মধ্যেই কভিড-বিপত্তি। তাই সোনাক্ষীর আরো বেশি আফসোস, ‘২০২১ সালে আমি নতুন করে শুরু করেছিলাম। তিনটি কাজ শেষ করে নতুন আরেকটি শুরুর অপেক্ষায় ছিলাম। এর মধ্যেই সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে। আশা করি, ফেব্রুয়ারিতে শুটিং করতে পারব।’ মুক্তির অপেক্ষায় থাকা সোনাক্ষীর ছবিগুলোর মধ্যে আছে ‘ডাবল এক্সএল’, ‘কাকুদা’। এ ছাড়া প্রথমবারের মতো ওয়েব সিরিজ করেছেন। ‘ফলেন’ নামের সিরিজটি দেখা যাবে আমাজন প্রাইম ভিডিওতে। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস।