রেকর্ড গড়ে বিশ্বজুড়ে শীর্ষে ‘অ্যানিমেল’

3

ছবিটি ভালো ব্যবসা করবে, এমনটা প্রত্যাশাই অধিকাংশের ছিল। কিন্তু বক্স অফিসে রীতিমতো তা-ব চালাবে, সেটা হয়ত কেউই কল্পনা করেনি। আর এই কল্পনাতীত ব্যবসাই করছে রণবীর কাপুর অভিনীত নতুন সিনেমা ‘অ্যানিমেল’। শুধু ভারতেই নয়, বরং বিশ্বজুড়ে ছবিটি অবিশ্বাস্য সাড়া পাচ্ছে। ওয়ার্ল্ডওয়াইড বক্স অফিসে হলিউডের ছবিগুলোকে টপকে শীর্ষে রয়েছে এটি। ভ্যারাইটির প্রতিবেদন অনুসারে, মাত্র তিন দিনে বিশ্বজুড়ে ‘অ্যানিমেল’র টিকিট বিক্রি হয়েছে ৪২ দশমিক ১ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের।

যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ৪৬৫ কোটি টাকারও বেশি! বিশ্বের ৩৮টি দেশে একযোগে মুক্তি পেয়েছে ছবিটি। এর মধ্যে উত্তর আমেরিকায় ৮৫০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়ে তিন দিনেই সেখানে ৬ দশমিক ১ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মাইলফলক অতিক্রম করেছে অ্যাকশন ধাঁচের ছবিটি। বিশ্ব বাজারে ‘অ্যানিমেল’র পর দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে হলিউড ছবি ‘নেপোলিয়ন’। এটি তিন দিনে সংগ্রহ করেছে ৩৫ দশমিক ৭ মিলিয়ন ডলার। হোয়াকিন ফনিক্স ও ভেনেসা কিরবির মতো তারকা আছেন ছবিটিতে। আয়ের নিরিখে তৃতীয় স্থানে আছে ‘দ্য হাঙ্গার গেমস: দ্য ব্যালাড অব সংবার্ডস অ্যান্ড স্নেকস’। এর টিকিট বিক্রি হয়েছে ২৯ দশমিক ৪ মিলিয়ন ডলারের।

এদিকে এমন বিধ্বংসী বাণিজ্যের কারণে ‘অ্যানিমেল’কে ‘সুনামি, হারিকেন, টাইফুন’ ইত্যাদি নামে অভিহিত করেছেন বলিউডের বর্ষীয়ান চলচ্চিত্রবোদ্ধা ও বিশ্লেষক তরন আদর্শ। তার ভাষ্য, “ঐতিহাসিক উইকেন্ড (মুক্তির প্রথম তিন দিন) পেলো ‘অ্যানিমেল’। ‘এ’ রেটিং (শুধু প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য) পাওয়ার পরও এটি ব্লকবাস্টার ব্যবসা করছে। অন্য ছবির সঙ্গে ক্ল্যাশ ছাড়া যদি একা মুক্তি পেতো, তাহলে ‘জাওয়ান’ সিনেমার উইকেন্ড রেকর্ডও ভেঙে দিতো ছবিটি।” তরন আদর্শের তথ্য অনুসারে, শুধু ভারতেই ছবিটির তিন দিনের কালেকশন ২০১ কোটি ৭৬ লাখ রুপি। এর মধ্যে হিন্দি ভার্সন থেকে এসেছে ১৭৬ কোটি ৫৮ লাখ রুপি।

‘পাঠান’কে (১৬১ কোটি) টপকে বলিউড ছবি হিসেবে এটি এখন তিন দিনে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আয়কারী ছবি। প্রথম স্থানটি ধরে রেখেছে শাহরুখ খানের ‘জাওয়ান’; সেটির তিন দিনে হিন্দি কালেকশন ছিল ১৮০ কোটি ৪৫ লাখ রুপি। উল্লেখ্য, বাবা-ছেলের আবেগ ও হিংস্র অ্যাকশনে ভরপুর এই ছবি নির্মাণ করেছেন সন্দীপ রেড্ডি ভাঙ্গা। এতে রণবীর কাপুরের সঙ্গে অভিনয় করেছেন রাশমিকা মান্দানা, অনিল কাপুর, ববি দেওল প্রমুখ।