রাসায়নিক সার মজুত ও চড়াদামে বিক্রির অপরাধে অর্থদণ্ড

10

চাঁপাইনবাবগঞ্জে রাসায়নিক সারের বাজার ঠিক রাখার জন্য নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে। মোবাইল কোর্ট চলাকালে যারা সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে অধিক দামে বিক্রি করছেন এবং যারা সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে সার মজুত করে রেখেছেন তাদের আইনের আওতায় এনে জরিমানা করা হচ্ছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ :
নিজস্ব প্রতিনিধি : চড়া দামে টিএসপি ও ইউরিয়া সার বিক্রির দায়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের আতাহার এলাকায় মেসার্স সদের ট্রেডার্স নামের এক খুচরা সার বিক্রেতাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট তৌফিক আজিজের নেতৃত্বে এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। এ সময় সদর উপজেলার অতিরিক্ত কৃষি অফিসার সলেহ আকরাম উপস্থিত ছিলেন। অতিরিক্ত কৃষি অফিসার সলেহ আকরাম এই তথ্য জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, গত রবিবার মেসার্স সদের ট্রেডার্সকে ১০ হাজার টাকা এবং মেসার্স নূরুজ্জামান ট্রেডার্সকে মোবাইল কোর্টে ৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
নাচোল প্রতিনিধি : নাচোল উপজেলায় রাসায়নিক সার মজুত ও চড়াদামে বিক্রি করার দায়ে সার ও বালাইনাসক ব্যবসায়ী হাবিবুল্লাকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন নাচোল উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোহাইমেনা শারমীন।
সোমবার সকাল ৮ টার দিকে উপজেলা সার মনিটরিং কমিটির নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে উপজেলার ১নং কসবা ইউনিয়নের সোনাইচন্ডী বাজারের সার ও বালাইনাশক ব্যবসায়ী হাবিবুল্লাহকে এই অর্থদ- প্রদান করা হয়।
ওই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে অবৈধভাবে ১হাজার বস্তা ডিএপি সার মজুদত ও চড়া দামে বিক্রয়ের অপরাধে এ দণ্ড প্রদানের পাশাপাশি মজুতকৃত সারের গুদামঘরটি সীলগালা করা হয়েছে।
পরবর্তীতে সরকার নির্ধারিত মূল্যে কৃষকের মাঝে বিতরণ করা হবে বলে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বুলবুল আহমেদ জানান।