রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফের জানাজা অনুষ্ঠিত

33

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে প্রকাশিত দৈনিক গৌড় বাংলার বার্তা সম্পাদক সাজিদ তৌহিদের আব্বা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফের জানাজা রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় নাচোল সরকারি কলেজ মাঠে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।
জাতির এই শ্রেষ্ঠ সন্তানকে নাচোল থানা পুলিশের একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করে। জানাজার পূর্বে বক্তব্য দেন, সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মু. জিয়াউর রহমান. নাচোল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের, নাচোল পৌরসভার মেয়র আব্দুর রশিদ খাঁন ঝালু, সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, নাচোল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হক মন্টু, মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার মতিউর রহমান, মরহুমের ছেলে সাজিদ তৌহিদসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। রাষ্ট্রের পক্ষে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন-নাচোল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাইমেনা শারমীন।
এসময় নাচোল থানার অফিসার ইনচার্জ মিন্টু রহমান, অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) ইকবাল পাশাসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। পরে মোমিন পাড়া গোরস্থানে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফকে সমাহিত করা হয়।
এর আগে গত বুধবার রাত ৮টা ৪০ মিনিটে নাচোল পৌর এলাকার মোমিনপাড়া গ্রামের নিজ বাসভবনে বার্ধক্য জনিত কারণে ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজেউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। তিনি স্ত্রী, ২ ছেলে ও ১ মেয়েসহ অসংখ্যগুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
মরহুম আব্দুল লতিফ লেখা পড়া শেষ করে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা শুরু করেন। পরে তিনি সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা এবং উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে বিভিন্ন স্থানে সততার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নাচোল, গোমস্তাপুর, ভোলাহাট ও সদর উপজেলাসহ নাটোর জেলার বাঘাতিপাড়া, নওগাঁর নিয়ামতপুর, পঞ্চগড়ের আটোয়ারি এবং সব শেষ নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলায় শিক্ষা অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি যে একজন সৎ মানুষ ছিলেন তা জানাজা পূর্ব আলোচনাকালে বক্তরা উল্লেখ করেন।
সাজিদ তৌহিদের আব্বার মৃত্যুতে দৈনিক গৌড় বাংলা পরিবারের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং শোক সন্তপ্তো পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন প্রকাশাসক ও সম্পাদক হাসিব হোসেন। তিনি মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন।