রাবি ভর্তি পরীক্ষায় থাকবে ১৫ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা

4

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন বিভাগে ভর্তি পরীক্ষায় র‌্যাব-পুলিশসহ বিভিন্ন সংস্থার পক্ষ থেকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। শনিবার বেলা ১১টার দিকে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক।
তিনি বলেন, ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। ১৫ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। কোনো অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্য সর্বদা কাজ করবে তারা। আশা করি সবার সার্বিক সহযোগিতায় সুষ্ঠুভাবে ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হবে।
অধ্যাপক আসাবুল হক জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কমিটি ও উপ-কমিটি, ইউনিটভিত্তিক সব কমিটি, র‌্যাব-পুলিশ, শৃঙ্খলা বিষয়ক সব কমিটি, সব গোয়েন্দা সংস্থা, প্রক্টর দপ্তর, ছাত্র-উপদেষ্টার দপ্তর, জনসংযোগ দপ্তর, আইসিটি সেন্টার, পরিবহন দপ্তর, হল প্রশাসন, বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশিং ফোরাম, স্কাউট, বিএনসিসিসহ বিভিন্ন সংগঠন ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক নিরাপত্তায় রয়েছে।
এসময় আরো জানানো হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে ৯টি ওয়াটারপ্রুফ টেন্ট স্থাপন করা হবে। প্রতিটি টেন্টে অভিভাবকদের বসার জন্য ২০০ করে চেয়ার থাকবে ও ১২ স্থানে ওয়াশরুমের ব্যবস্থা থাকছে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে স্থাপিত ৯টি হেল্প ডেস্কের মাধ্যমে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সহযোগিতা প্রদান করবে। পরীক্ষা চলাকালীন বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে সব ধরনের প্রচারণামূলক লিফলেট বিতরণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। নারী অভিভাবকদের অবস্থানের জন্য ছাত্রী জিমনেশিয়ামে সীমিত ব্যবস্থা করা হয়েছে। ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে রাবি চিকিৎসা কেন্দ্র পরিচালিত একটি মেডিকেল টিম কাজ করবে। সার্বক্ষণিকভাবে চারটি অ্যাম্বুলেন্স থাকবে। এছাড়াও কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন কর্তৃক পরিচালিত দুই সদস্যের একটি মেডিকেল টিম এবং দুটি অ্যাম্বুলেন্স চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করবে। পরীক্ষা চলাকালীন অভিভাবকদের অপেক্ষার জন্য শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে (টিএসসিসি) বসার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
সম্মেলনে পরীক্ষা চলাকালে শিক্ষার্থীদের নির্দেশনার বিষয়ে জানানো হয়েছে, প্রতিদিন পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষা কক্ষের প্রবেশ গেট খুলে দেয়া হবে। পরীক্ষা চলাকালে কোনো ভর্তিচ্ছু পরীক্ষা কক্ষের বাইরে যেতে পারবে না। হলে মোবাইল ফোন ও ক্যালকুলেটরসহ মেমোরিযুক্ত অন্য কোনো ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস সঙ্গে রাখা যাবে না।
এদিকে এ বছর রাবি ভর্তি পরীক্ষায় বিশেষ কোটাসহ ৪ হাজার ৬৪১টি আসনে ভর্তি পরীক্ষা হবে। এ আসনের বিপরীতে ১ লাখ ৭৮ হাজার ২৬৮টি চূড়ান্ত আবেদন জমা হয়েছে। এর মধ্যে ‘এ’ ইউনিটে ৬৭ হাজার ২৩৭টি, ‘বি’ ইউনিটে ৩৮ হাজার ৬২১টি ও ‘সি’ ইউনিটে ৭২ হাজার ৪১০টি চূড়ান্ত আবেদন সম্পন্ন হয়। এবার একক আবেদনকারীর সংখ্যা ১ লাখ ৫০ হাজার ৪২৯ জন। এবার এক ঘণ্টাব্যাপী ভর্তি পরীক্ষা এমসিকিউ পদ্ধতিতে গ্রহণ করা হবে।
১১ ট্রেনের সাপ্তাহিক ছুটি বাতিল : এদিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ১১ ট্রেনের সাপ্তাহিক ছুটি বাতিল করেছে। এছাড়া ভর্তি ইচ্ছুদের রাজশাহীতে আসা এবং ফিরে যাওয়ার জন্য বেশ কয়েকটি ট্রেনে নতুন কোচ যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
পাকশী রেলওয়ের বিভাগীয় ব্যবস্থাপক শাহিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের একদিকে ভোগান্তি কমবে, অন্যদিকে যাতায়াতে সুবিধা হবে। ফলে পরিবহন ব্যয়ও কিছুটা কমবে।
পাকশী রেলওয়ের বিভাগীয় সহকারী পরিবহন কর্মকর্তা সাজেদুল ইসলাম বাবু জানান, পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে ২২ থেকে ২৭ জুলাই রাজশাহী থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে চলাচলকারী ১১ ট্রেনের সাপ্তাহিক ছুটি বাতিল করা হয়েছে। ট্রেনগুলো হলোÑ সিল্ক সিটি এক্সপ্রেস, ধূমকেতু এক্সপ্রেস, পদ্মা এক্সপ্রেস, বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস, সাগরদাড়ি এক্সপ্রেস, ঢালারচর এক্সপ্রেস, টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেস, রহনপুর কমিউটার, কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস, তিতুমীর এক্সপ্রেস ও মধুমতি এক্সপ্রেস।
পাকশী রেলওয়ে বিভাগীয় সহকারী বাণিজ্যিক কর্মকর্তা নূর আলম জানান, সাপ্তাহিক ছুটি বাতিলকৃত ট্রেনের টিকেট বিক্রি যথা নিয়মে চালু রয়েছে। কাউন্টার ও অনলাইনের মাধ্যমে যাত্রীরা টিকেট সংগ্রহ করতে পারবেন। এছাড়া যাত্রীদের সুবিধার্থে বেশ কয়েকটি ট্রেনে অতিরিক্ত বগি যুক্ত করা হবে।