রানীর শেষ বিদায়ের জন্য প্রস্তুত ব্রিটেন

2

রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার শেষ পর্যায়ে রবিবার রাজা চার্লস তৃতীয় বিশ্বনেতাদের স্বাগত জানিয়েছেন এবং শোকার্তরা শেষ ২৪ ঘণ্টায় রানীর কফিন দেখার জন্য সারিবদ্ধ অবস্থান নিয়েছেন।
জনসাধারণের প্রথম দর্শনার্থীরা এরই মধ্যে ওয়েস্টমিনিস্টার অ্যাবেতে সোমবারের রাজকীয় বিদায়ের মুহূর্ত একঝলক দেখার জন্য আগে থেকেই অবস্থান নিয়েছেন, যা লন্ডনকে স্থবির করে দেবে। বিশ্বব্যাপী কোটি কোটি দর্শক এই শেষকৃত্য অনুষ্ঠান দেখবে বলে আশা করা হচ্ছে।
কয়েক ডজন রাষ্ট্রপ্রধানের মধ্যে শনিবার দিনের শেষ দিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন লন্ডনে পৌঁছেছেন। ব্রিটেন দীর্ঘতম রাজত্বকারী রানীর ঐতিহাসিক অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার অনুষ্ঠান ঘিরে চারপাশে সর্বকালের বৃহত্তম পুলিশি অভিযান পরিচালনা করছে।
সাত দশক ধরে ব্রিটিশ রাজত্বের রানী হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর গত ৮ সেপ্টেম্বর রানী এলিজাবেথ ৯৬ বছর বয়সে মারা যান। তার প্রতি আবেগের বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়ে তার কফিনটি দেখতে হাজার হাজার মানুষ ব্রিটিশ পার্লামেন্টে ভিড় করছে।
যারা পতাকা লাগানো কাসকেটটি দেখতে চান তারা আজ সোমবার ভোর সাড়ে ৬টা পর্যন্ত (০৫৩০ জিএমটি) এটি দেখতে ওয়েস্টমিনস্টার হলে প্রবেশ করতে পারবেন।
টেমস নদীর তীরে মাইলের পর মাইল সারি সারি শোকার্তরা ২৫ ঘণ্টা পর্যন্ত অপেক্ষার সম্মুখীন হয়েছেন। লাইনে ঢোকার জন্য রবিবার কিছু পয়েন্ট বন্ধ করে দেয়া হবে বলে মনে হচ্ছে।
২৭ বছর বয়সী আইটি কর্মী শন মায়ো রানীর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ১৪ ঘণ্টা সারিবদ্ধ থাকার পরে ওয়েস্টমিনস্টার হলে পৌঁছেছিলেন। তিনি এএফপিকে বলেছেন, ‘এটি অবিশ্বাস্যভাবে আবেগপ্রবণ ঘটনা ছিল। তিনি ছিলেন জাতির নানির মতো, আমরা সবাই তাকে মিস করব।’
ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ফ্রান্স, জাপান এবং অন্যান্য অনেক দেশের নেতারা অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় অংশ নিলেও রাশিয়া, আফগানিস্তান, মিয়ানমার, সিরিয়া এবং উত্তর কোরিয়ার নেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।
সবচেয়ে বয়স্ক রাজা হিসেবে চার্লস ৭৩ বছর বয়সে সিংহাসনে আরোহণের পর রবিবার সন্ধ্যায় বাকিংহাম প্যালেসে একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বাইডেনসহ কয়েক ডজন দর্শনার্থী বিশিষ্ট ব্যক্তিকে স্বাগত জানান।
নিউজিল্যান্ডের জাসিন্ডা আরডার্ন, অস্ট্রেলিয়ার অ্যান্থনি আলবানিজ এবং কানাডার জাস্টিন ট্রুডোসহ রানী এলিজাবেথ রাষ্ট্রপ্রধান ছিলেন এমন দেশগুলোর প্রধানমন্ত্রীরা ওয়েস্টমিনস্টার হলে তাদের শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।