দৈনিক গৌড় বাংলা

শনিবার, ১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

রাজশাহীতে দিনব্যাপী সর্বজনীন পেনশন মেলা অনুষ্ঠিত

রাজশাহীতে সর্বজনীন পেনশন মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকালে রাজশাহীর হাজী মুহাম্মদ মুহসিন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে বেলুন উড়িয়ে দিনব্যাপী এই মেলার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব তোফাজ্জল হোসেন মিয়া।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব শেখ মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ, জাতীয় পেনশন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান কবিরুল ইজদানী খান, মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটির এক্সিকিউটিভ ভাইস চেয়ারম্যান মো. ফসিউল্লাহ্, এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক (গ্রেড-১) সাইদুর রহমান, রাজশাহী বিভাগের ডিআইজি মো. আনিসুর রহমানসহ অন্যরা।
উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথিসহ অতিথিরা মেলার স্টল পরিদর্শন করেন। মেলার মঞ্চে সর্বজনীন পেনশন নিয়ে গম্ভীরা পরিবেশন করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসন গম্ভীরা দল।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, সর্বজনীন পেনশন কর্মসূচির প্রতি জনগণকে আগ্রহী করে তুলতে সারা দেশে সর্বজনীন পেনশন মেলা আয়োজন করছে সরকার। এর ধারাবাহিকতায় প্রথম ধাপে রাজশাহীতে মেলা অনুষ্ঠিত হলো। এই মেলায় মোট ১২৫টি স্টল অংশ নেয়। চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর, নাচোল, গোমস্তাপুর ও ভোলাহাট উপজেলা ইউডিসি সেন্টার নিজ নিজ স্টলে অংশ নেয়।

এদিকে উন্নয়ন সংস্থা প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি তাদের স্টলে সর্বজনীন পেনশন স্কিমের লিফলেট বিতরণ করে এবং মেলায় উপস্থিত প্রয়াসের কর্মকর্তাদের রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করে।
এসময় প্রয়াসের প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক হাসিব হোসেন, প্রয়াসের পরিচালক আলেয়া ফেরদৌস, যুগ্ম পরিচালক নাসের উদ্দিন, সিনিয়র সহকারী পরিচালক তাজেমুল হক, আবুল খায়ের খান, সহকারী পরিচালক জুলফিকার আলী ও মমিনুল ইসলাম, কনিষ্ঠ সহকারী পরিচালক মু. তাকিউর রহমান, আব্দুস সালাম, ফিরোজ আলম ও আবুল কালাম আজাদসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত বছরের ১৭ আগস্ট আনুষ্ঠানিকভাবে সর্বজনীন পেনশন কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। চার শ্রেণির জনগোষ্ঠীর জন্য চার ধরনের পেনশন স্কিম রয়েছে। এগুলো হলো প্রগতি, সুরক্ষা, সমতা ও প্রবাসী। এর মধ্যে বেসরকারি খাতের চাকরিজীবীদের জন্য ‘প্রগতি’, স্বকর্মে নিয়োজিত ব্যক্তিদের জন্য ‘সুরক্ষা’, প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য ‘প্রবাসী’ এবং নি¤œ আয়ের জনগোষ্ঠীর জন্য ‘সমতা’।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তোফাজ্জল হোসেন মিয়া বলেন, সরকারি ব্যাংকে টাকা রাখলে যেমন আপনার টাকা নিরাপদ। ঠিক তেমনি আপনার টাকাও পেনশন কর্তৃপক্ষের কাছে নিরাপদে থাকবে। সরকারের কাছে এই টাকা থাকবে। এই টাকা নিরাপদ বিনিয়োগ করে যে লাভ হবে, সেই টাকা দিয়ে আপনাদেরকে পেনশন দেবে সরকার। কাজেই আসুন সর্বস্তরের মানুষ এই পেনশনে অংশগ্রহণ করি।

About The Author