যেমন ছিলো ইউক্রেনে রুশ অভিযানের দশম দিন

6

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রুশ বাহিনীকে ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের নির্দেশ দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন। শনিবার ১০ দিনে গড়ালো এই অভিযান। রাশিয়ার সেনাদের হামলার মাত্রা আরও বেড়েছে। ইউক্রেনের সবশেষ খবর তুলে ধরেছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি।
ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের আশপাশের শহরগুলোতে গোলা বষর্ণ ব্যাপক আকারে চালাচ্ছে রুশ সেনারা। এতে ক্ষয়ক্ষতি ও হতাহত বেড়েই চলছে। বিশেষ করে বেসামরিক স্থাপনায় নির্বিচারে হামলা অব্যাহত রেখেছে। কৃষ্ণ সাগর ঘেষা ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহরগুলোর প্রশাসন ব্যাপক চাপের মুখে রয়েছে। এ ছাড়া উত্তর এবং পূর্ব দিক থেকে রুশ সেনাদের তা-বের খবর জানাচ্ছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো। ইউক্রেনের আকাশে নো ফ্লাই জোন ঘোষণা না করায় ন্যাটোর প্রতি ফের নিন্দা জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি। ন্যাটোর সেক্রেটারি জেনারেল ও যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেনের বিবৃতি জানার পরপরই জেলেনস্কি তার ফেসবুকে এ প্রতিক্রিয়া জানান। তার আগে ইউক্রেনের আকাশে নো ফ্লাই জোনে একাদিক বার আবেদন করেন জেলেনস্কি।
এদিকে রাশিয়ারও বিপদের শেষ নেই। পূর্ব ইউরোপের দেশটিতে আক্রমণের ফলে নিষেধাজ্ঞার বোঝা বাড়ছেই। এরমধ্যে রাশিয়াতে মাইক্রোসফট ও স্যামসাং প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য বিক্রি এবং উৎপাদন বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানগুলো। ইউক্রেনে সামরিক অভিযান সংক্রান্তে একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে ভুয়া খবর প্রচারের অভিযোগ তুলেছে মস্কো। এ ধরনের সংবাদ যারা প্রকাশ করবে তাদের জন্য কঠোর শাস্তির বিধান রেখে একটি আইন পাস করেছে দেশটি। এটি অনুমোদনের পর বিবিসিসহ বেশ কয়েকটি স্বাধীন সংবাদমাধ্যম রাশিয়ায় কার্যক্রম স্থগিত করেছে। ইউক্রেনের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় শহর মারিউপলে রুশ এবং ইউক্রেনীয় বাহিনীর মধ্যে এখনও তীব্র লড়াই চলছে বলে জানা গেছে। সেখানে মানবিক করিডোর স্থাপনের আহ্বান জানিয়েছেন স্থানীয় মেয়র। শহরটি রুশ সেনাদের অবরুদ্ধ করে রেখেছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি। সূত্র: বিবিসি।