যুক্তরাষ্ট্রকে হারিয়ে গ্রুপের সেরা বাংলাদেশ

3

অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কাকে হারানোর পর যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে জয়টা প্রত্যাশিতই ছিল। খুব দাপুটে জয় অবশ্য ধরা দেয়নি, তবে হোঁচটও খেতে হয়নি। টানা তিন জয়ে আত্মবিশ্বাস অটুট রেখেই সুপার সিক্স পর্বে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ উইমেন’স বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রকে ৫ উইকেটে হারায় বাংলাদেশ।

দক্ষিণ আফ্রিকার বেনোনিতে বুধবার বাংলাদেশের জয়ের ভিত গড়ে দেন বোলাররা। ক্যারিবিয়ান গ্রেট শিবনারায়ণ চন্দরপলের কোচিংয়ে খেলা যুক্তরাষ্ট্র দলকে তারা আটকে রাখে ১০৩ রানে। রান তাড়ায় আগের ম্যাচগুলোর মতো পাওয়ার হিটিং আর স্ট্রোকের ছটা এ দিন দেখাতে পারেননি আফিয়া প্রত্যাশা, সুমাইয়া আক্তার, স্বর্ণা আক্তাররা। তবে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলেন তারা ১৫ বল বাকি রেখে। উইলমুর পার্কে যুক্তরাষ্ট্র টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ২০ ওভারে উইকেট হারায় মাত্র ৪টি। তবে বাংলাদেশের বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে রান খুব বেশি তুলতে পারেনি তারা। চতুর্থ ওভারে লাসিয়া মুলাপুড়িকে (৫) ফিরিয়ে বাংলাদেশকে প্রথম উইকেট এনে দেন অধিনায়ক দিশা বিশ্বাস। দ্বিতীয় উইকেটে দিশা ধিংড়া ও স্নিগ্ধা পল গড়েন ৫৭ রানের জুটি। তবে বল লেগে যায় ৬৫টি! ৩৯ বলে ২০ করে রান আউট হন দিশা ধিংড়া।

স্নিগ্ধাকে (৩৭ বলে ২৬) বোল্ড করেন দিশা বিশ্বাস। পরে ইসানি ভাগেলার ১৭ বলে ১৭ ও গিতিকা কোড়ালির ১৬ বলে ১৬ রানের ইনিংসে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াতে পারে একশ। বাংলাদেশ এ দিন উদ্বোধনী জুটিতে পরিবর্তন আনে একটু। মিডল অর্ডার থেকে সুমাইয়া আক্তারকে ওপেনিংয়ে তুলে আনা হয়। আফিয়া প্রত্যাশা তো ছিলেনই। তবে এই জুটি সফল হয়নি। ১২ বলে ১০ রান করে আউট হয়ে যান সুমাইয়া। ঝড় তুলতে পারেননি এ দিন প্রত্যাশাও (১০ বলে ৭)। ফর্মে থাকা দুই ব্যাটার দিলারা আক্তার ও স্বর্ণা আক্তার রানের দেখা পান। তবে দুজনের কেউই বড় করতে পারেননি ইনিংস। প্লেয়ার অব দা ম্যাচ দিলারা ফেরেন ১৫ বলে ১৭ রান করে। এই টুর্নামেন্টের সেনসেশন স্বর্ণা যথারীতি আগ্রাসী ব্যাটিংয়ের ধারা ধরে রেখে ২ চার ও ১ ছক্কায় করেন ১৪ বলে ২২। দক্ষিণ আফ্রিকায় যাওয়ার পর পাঁচ ম্যাচ খেলে প্রথমবার আউট হলেন স্বর্ণা।

টুর্নামেন্ট শুরুর আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে করেন তিনি অপরাজিত ২০ ও ভারতের বিপক্ষে ৭ ছক্কায় অপরাজিত ৭৮। এরপর মূল টুর্নামেন্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে করেন অপরাজিত ২৩, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২৮ বলে অপরাজিত ৫০। এ দিন বড় জয় না পাওয়ায় মন্দের ভালো দিক, সুপার সিক্মের আগে অন্য ব্যাটারদের খানিকটা ব্যাটিং অনুশীলন হয়ে যায়। তা কাজে লাগিয়ে ১৮ রানে অপরাজিত থাকেন রাবেয়া খান। অধিনায়ক দিশা বিশ্বাস যদিও ১০ রান করে আউট হয়ে যান। তবে আগের দুই ম্যাচে ওপেনিংয়ে ব্যর্থ মিষ্টি সাহা এবার সাতে নেমে কিছুটা ছন্দ খুঁজে পান। অপরাজিত থাকেন তিনি ১৩ বলে ১৪ রান করে। সুপার সিক্সে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ থাকবে ‘ডি’ গ্রুপ থেকে উঠে আসা দুই দল। সম্ভাব্য সেই দুই দল ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
যুক্তরাষ্ট্র অনূর্ধ্ব-১৯: ২০ ওভারে ১০৩/৪ (লাসিয়া ৫, দিশা ২০, স্নিগ্ধা ২৬, ইসানি ১৭*, গিতিকা ১৬; মারুফা ৪-০-১৭-১, দিশা ৪-১-১৩-২, দিপা ৪-০-২৭-০, রাবেয়া ৪-০-১৪-০, স্বর্ণা ১-০-৪-০ অর্থি ৩-০-১৭-০)
বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯: ১৭.৩ ওভারে ১০৪/৫ (প্রত্যাশা ৮, সুমাইয়া ১৭, দিলারা ১৭, স্বর্ণা ২২, রাবেয়া ১৮*, দিশা ১০, মিষ্টি ১০*; স্নিগ্ধা ৩-০-২০-১, অদিতিবা ৪-১-১৫-২, ইসানি ১-০-১০-০, ভুমিকা ৩-০-২৩-১, সাই তন্ময়ি ৪-০-১৯-১, রিতু ১.৩-০-১০-০, গিতিকা ১-০-১০-০)
ফল: বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল ৫ উইকেটে জয়ী
প্লেয়ার অব দা ম্যাচ: দিশা বিশ্বাস