দৈনিক গৌড় বাংলা

শনিবার, ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

যাদের আদা-চা খাওয়া নিষেধ

আদা আমাদের সবার সুপরিচিত একটি মসলা। আমরা আদা প্রতিদিনেই কিছু না কিছুর সঙ্গে খেয়ে থাকি। অনেকে চায়ের সঙ্গে আদা খেয়ে থাকেন। তবে এ মসলার সব থেকে বেশি ব্যবহার হয়ে থাকে তরকারিতে, মানে রান্নার কাজে। আদায় আছে প্রচুর পরিমাণে ঔষধি গুণ। ঠান্ডা, গলাব্যথায় আদা-চা বেশ উপকারী। তবে সবসময় আদা-চা খাওয়া কি ঠিক? আজকে আমরা জানব আদার অপকারিতা নিয়ে। তবে কিছু ওষুধ আছে, যেগুলোর সঙ্গে আদা সেবনে রয়েছে স্বাস্থ্যঝুঁকি। যেসব ওষুধ খেলে আদা খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। যারা রক্ত পাতলার কারণে ওষুধ (যেমন: ওয়ারফেরিন, অ্যাসপিরিন বা ক্লোপিডোগ্রেল ইত্যাদি) সেবন করেন, আদা তাদের শরীরে রক্তক্ষরণের ঝুঁকি বাড়াতে পারে। তাই এসব ওষুধ সেবনকালে আদা এবং আদা-চা খাওয়া থেকে বিরত থাকা জরুরি। এ ছাড়া উচ্চ রক্তচাপের ওষুধের সঙ্গে, বিশেষ করে ক্যালসিয়াম চ্যানেল ব্লকার, যেমন- অ্যামলোডিপিনের সঙ্গে আদা সেবন করলে রক্তচাপ বেশি কমে যেতে পারে। পাশাপাশি ব্যথানাশক যেমন: ডাইক্লোফেনাক বা ন্যাপ্রোক্সেন-জাতীয় ওষুধের সঙ্গে আদা খেলেও রক্তপাতের আশঙ্কা বেড়ে যায়। গর্ভবস্থায় আদা খাওয়া উচিত না- এতে প্রিম্যাচিউর বাচ্চা হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। আদা চা বেশি খেলে অনিদ্রা দেখা দিতে পারে। যারা ডায়াবেটিস ও রক্তচাপের ওষুধ খেয়ে থাকেন, তাদের আদা না খাওয়াই ভালো। আদা বেশি পরিমাণে খেলে ডায়রিয়া ও পেটব্যথা বাড়তে পারে। আদা বেশি খেলে হৃদযন্ত্রের গতি বেড়ে যায়। অতিরিক্ত আদা খেলে ত্বকের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

About The Author