দৈনিক গৌড় বাংলা

শনিবার, ১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

মেসি উজ্জ্বল হলেও জয় পায়নি দল

এই মুহূর্তেরই যেন অপেক্ষা ছিল। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে লিওনেল মেসি মাঠে নামতেই গর্জন উঠল গ্যালারিতে। মাঠের ফুটবলেও বয়ে গেল রোমাঞ্চের স্রোত। ইন্টার মায়ামির খেলার গতিই বদলে গেল। দারুণ এক গোল করে মেসিই সমতায় ফেরালেন পিছিয়ে থাকা দলকে। একটু পরে তিনি অবদান রাখলেন আরেক গোলে। প্রতিপক্ষের গোলমুখে হুমকি ছড়ালেন বারবার। কিন্তু শেষটা প্রত্যাশিত হলো না মেসিদের। পয়েন্ট হারালেন তারা শেষ দিকে গোল হজম করে। মেজর লিগ সকারের ম্যাচটিতে কলোরাডো র‌্যাপিডসের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে ইন্টার মায়ামি। বাংলাদেশ সময় রোববার সকালের এই ম্যাচ দিয়েই চোট কাটিয়ে মাঠে ফেরেন মেসি। মেজর লিগ সকারে তিনি সবশেষ খেলেছিলেন গত ২ মার্চ। ১৩ মার্চ কনক্যাকাফ চ্যাম্পিয়ন্স কাপের ম্যাচের ৫০তম মিনিটে তিনি মাঠ ছেড়ে যান হ্যামস্ট্রিংয়ে টান লাগায়। এরপর থেকেই তার ফেরার অপেক্ষায় ছিল ক্লাব ও সমর্থকেরা। এই ম্যাচে তার ফেরার ইঙ্গিত ক্লাবের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছিল আগেই। সহকারী কোচ হাভিয়ের মোরালেস বলেছিলেন, ১০-১৫ মিনিট হলেও মেসিকে খেলাতে চান তারা। শেষ পর্যন্ত আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ের নায়ককে পুরো দ্বিতীয়ার্ধেই দেখা যায় মাঠে। মেসি নামার আগে উত্তেজনার উপকরণ খুব বেশি ছিল না ম্যাচে।

প্রথমার্ধের শেষ সময়ে রাফায়েল নাভারোর পেনাল্টিতে এগিয়ে যায় কলোরাডো। দ্বিতীয়ার্ধে মেসি নামার পর মায়ামির প্রবল দাপটের শুরু। গোলও আসে সেই ধারাবাহিকতায়। ৫৭তম মিনিটে ডানপাশে বক্সের একটু বাইরে থেকে দারুণ ক্রস করেন আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডার ফ্রাঙ্কো নেগ্রি। ফাঁকায় থাকা মেসি বক্সের একটু ভেতর থেকে বল না ধরেই বাঁ পায়ের নিঁখুত শট নেন। পোস্টে লেগে বল ঢুকে যায় জালে। তিন মিনিট পরই মেসির পাস থেকে বল পান দাভিদ রুইস। হন্ডুরাসের এই মিডফিল্ডার দারুণভাবে বক্সে ঢুকে বল বাড়িয়ে দেন লিওনার্দো আফোন্সোর দিকে। ব্রাজিলিয়ান এই ফরোয়ার্ড সরাসরি শটে পরাস্ত করেন কলোরাডোর গোলকিপারকে। শুরুর একাদশে প্রথমবার জায়গা পেয়েই গোলের স্বাদ পেলেন ২২ বছর বয়সী এই ফুটবলার। এই শট ঠেকাতে না পারলেও কলোরাডোর গোলকিপার জ্যাক স্টিফেন দলের ত্রাতা হয়েছেন বারবার। মায়ামির মোট ৫টি শট ঠেকিয়েছেন ম্যানচেস্টার সিটিতে ৫ বছর কাটিয়ে আসা ২৯ বছর বয়সী এই গোলকিপার। গোল করে ও বানিয়ে দিয়েও থামেননি মেসি।

৭৪তম মিনিটে তার একটি ফ্রি কিক চলে যায় ক্রসবারের সামান্য ওপর দিয়ে। চার মিনিট পর তার আরেকটি শট বাইরে যায় একটুর জন্য। ৮৮তম মিনিটে দারুণ একটি পাল্টা আক্রমণ থেকে সমতায় ফেরে কলোরাডো। বদলি নামা ক্যালভিন হ্যারিস বল নিয়ে দ্রুত গতিতে এগিয়ে মায়ামির বক্মের একটু বাইরে তিনজনের মধ্য থেকে চমৎকারভাবে বাড়িয়ে দেন বল। পা বাড়িয়েও বলের নাগাল পাননি মায়ামির সের্হিও বুসকেতস। তার ঠিক পাশেই থাকা কোল বাসেট ঠা-া মাথায় নিখুঁত ফিনিশিংয়ে জালে জড়ান বল। যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে গ্যালারি থেকে মাঠে ঢুকে মেসির সঙ্গে সেলফি নেওয়ার চেষ্টা করেন এক তরুণী। নিরাপত্তাকর্মীরা তাকে বাইরে নিয়ে যান দ্রুতই। যোগ করা সময়ের ষষ্ঠ মিনিটে ফ্রি কিক পায় কলোরাডো। মায়ামিকে এবার রক্ষা করেন গোলকিপার ড্রেক ক্যালেন্ডার। মায়ামি পারেনি আর সুযোগ তৈরি করতে। মেসির ফেরাও তাই পূর্ণতা পায়নি। এই ম্যাচের পর ৮ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে মেজর লিগ সকারের ইস্টার্ন কনফারেন্সের পয়েন্ট তালিকায় তিনে আছে মায়ামি। ৬ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ফিলাডেলফিয়া, ৭ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে নিউ ইয়র্ক রেড বুলস।

About The Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *