মুক্তির উৎসব ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী : জেলায় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের রোডশো

11

চাঁপাইনবাবগঞ্জে মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে সাত দিনব্যাপী জেলা প্রশাসনের কর্মসূচির অংশ হিসেবে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে রোডশো করা হয়। বুধবার সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খান সুসজ্জিত ট্রাকবহরে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের রোডশোর উদ্বোধন করেন।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (আইসিটি ও শিক্ষা) আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম ও বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিনের নেতৃত্বে নাচোল উপজেলার উদ্দেশ্যে ট্রাকযোগে যাত্রা শুরু করে রোডশো।
রোডশো প্রথমে নাচোল উপজেলা পরিষদে পৌঁছালে সেখানে উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল কাদের ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরিফ আহম্মেদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এ সময়ে স্থানীয় স্কুলের শিক্ষার্থীরা জাতীয় পতাকা নেড়ে অভিবাদন জানায়।
পরে পরিষদের হলরুমে স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন এবং সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করা হয়। এতে বক্তব্য দেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (আইসিটি ও শিক্ষা) আহমেদ মাহবুব-উল- ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ রুহুল আমিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সামাদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের।
পরে রোডশো গোমস্তাপুর উপজেলা পরিষদের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। সেখানে পৌঁছানোর পর বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ফুল দিয়ে স্বাগত জানান গোমস্তাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হুমায়ন রেজা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসমা খাতুনসহ স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধারা।
এরপর বীর মুক্তিযোদ্ধারা দুপুরে ভোলাহাট উপজেলায় পৌঁছালে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাব্বুল হোসেন ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে তাবাসসুমসহ স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধারা তাদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।
মধ্যাহ্নভোজ শেষে নির্বাহী অফিসার উম্মে তাবাসসুমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় মুক্ত এলাকা ভোলাহাটে মুক্তিযোদ্ধাদের নিরাপদ আশ্রয়স্থল উল্লেখ করে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিময় উপজেলায় প্রবেশ ও বের হওয়ার দুই পথে (গোমস্তাপুর ও শিবগঞ্জ) গেট নির্মাণের দাবি জানান বীর মুক্তিযোদ্ধারা।
পরে শিবগঞ্জে পৌঁছালে মুক্তিযোদ্ধাদের স্বাগত জানান শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাকিব-আল-রাব্বি, বীর মুক্তিযোদ্ধা বজলুর রশিদ সনু, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নানসহ অন্যরা।
সুসজ্জিত ট্রাক বহরে আরো উপস্থিত ছিলেনÑ বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা তরিকুল আলম, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাক হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলাউদ্দিন আলিসহ অন্যরা।
জেলায় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে এমন কর্মসূচি এই প্রথম। জেলা প্রশাসনের এ কর্মসূচি চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাইলফলক হয়ে থাকবে বলে আশাবাদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের।