মিষ্টি প্রেমের গল্পে জোভান-ফারিণ

7

‘লাইফ ইজ বিউটিফুল’ নাটকটির চিত্রনাট্য একটি মিষ্টি প্রেমের গল্পকে কেন্দ্র করে তৈরি হয়েছে। এর অনন্য বৈশিষ্ট্য হচ্ছে নায়ক-নায়িকার মধ্যকার চমৎকার সব সংলাপ। কেন্দ্রীয় চরিত্র রূপা ও নায়ক অরণ্য চৌধুরীর মিষ্টি প্রণয় দিয়ে নাটকটি শুরু হলেও একসময়ে এসে রূপা অরণ্যের প্রতি ক্ষুব্ধ হয়ে উঠবে। কোনোভাবেই অরণ্যের প্রতি বিশ্বাস ও আস্থা রাখতে পারবে না। যার ফলে রূপা তাদের সম্পর্কের ইতি টানতে চাইবে। কেননা পুরো গল্পটি জুড়েই থাকবে নায়ক অরণ্যের হেঁয়ালিপনা ও কথার মারপ্যাঁচ।

অন্যদিকে অরণ্যও রূপাকে প্রচ-ভাবে ভালোবাসবে কিন্তু দুর্বিষহ বেকার জীবন ও জীবনের টানাপড়েনের এই কঠিন সময়ে রূপাকে উৎফুল্ল রাখতেই অরণ্য নানা রকম ফাজলামো ও বাঁদরামো দিয়ে তাকে ব্যতিব্যস্ত রাখতে চাইবে। কিন্তু শেষমেশ রূপার বিয়ে ঠিক হতেই অরণ্য প্রচ-ভাবে ভেঙে পড়বে। শেষে গল্পটি মোড় নেবে অন্য পরিণতির দিকে। সিএমভি প্রযোজিত এই নাটকটির চিত্রনাট্য লিখেছেন মঈনুল সানু এবং নির্মাণ করেছেন রুবেল হাসান। এর প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন জোভান ও তাসনিয়া ফারিণ। নির্মাতা রুবেল হাসান বলেন, ‘নাটকটির পুরোটাজুড়ে প্রেম, বিরহ ও হেঁয়ালি দিয়ে সাজানো। জোভান ও ফারিণ জুটি হিসেবে অসাধারণ অভিনয় করেছেন এতে। আশা করছি দর্শকরা উপভোগ করবেন।’ নাটকটি শিগগিরই উন্মুক্ত হচ্ছে সিএমভি’র ইউটিউব চ্যানেলে।