মঙ্গলবার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে কক্সবাজার যাবেন প্রধানমন্ত্রী

58

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ঢলের মধ্যে কক্সবাজারে শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শনে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন জানান,  মঙ্গলবার উখিয়ার কুতুপালংয়ে গিয়ে সরকারপ্রধান রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন করবেন। গত ২৪ অগাস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে কয়েকটি পুলিশ পোস্ট ও একটি সেনা ঘাঁটিতে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার পর সেখানে নতুন করে সেনা অভিযান শুরু হয়। এই প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশ সীমান্তে নতুন করে রোহিঙ্গাদের ঢল নামে। প্রায় ২ লাখ ৯০ হাজার রোহিঙ্গা এরইমধ্যে বাংলাদেশে ঢুকেছে বলে জাতিসংঘের কর্মকর্তারা ধারণা করছেন। মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর জাতিগত নিপীড়ন চলে আসছে কয়েক দশক ধরে। বিভিন্ন সময়ে সহিংসতার মুখে সেখান থেকে পালিয়ে এসে পাঁচ লাখের বেশি মানুষ বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়ে আছে। তাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বার বার আহ্বান জানানো হলেও মিয়ানমার তাতে সাড়া দেয়নি। রোহিঙ্গাদের এই ¯্রােত ঠেকাতে মিয়ানমারে জাতিসংঘের মতো কোনো একটি আন্তর্জাতিক সংস্থার তত্ত্বাবধানে একাধিক নিরাপদ এলাকা (সেইফ জোন) গড়ে তোলার প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ। ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অব দ্য রেড ক্রসের (আইসিআরসি) মাধ্যমে সম্প্রতি মিয়ানমার সরকারকে এ প্রস্তাব দেওয়া হয় বলে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবর। রাখাইনে পুলিশ পোস্ট ও সেনা ঘাঁটিতে বিদ্রোহীদের ওই হামলার পর বাংলাদেশের পক্ষ থেকে সীমান্তে যৌথ টহলেরও প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। তবে সে বিষয়ে এখনও মিয়ানমারের সাড়া পাওয়া যায়নি। তুরস্কের ফার্স্ট লেডি এমিনে এরদোয়ান রোহিঙ্গাদের দুর্দশা দেখতে বাংলাদেশে এলে গত বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। পরে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় শেখ হাসিনা বলেন, এই যে একেকটা ঘটনা ঘটছে, আর মানুষ সর্বস্ব হারিয়ে আশ্রয়ের আশায় ছুটে আসছে। আমরা সাধ্যমতো চেষ্টা করছি তাদের সহযোগিতা করতে। সাথে সাথে আমরা মিয়ানমার সরকারকেও চাপ দিচ্ছি। তাদের দেশের মানুষ যারা আমাদের দেশে আছে; তাদের যেন ফিরিয়ে নিয়ে যায়। সেটাই আমরা চাই।