ভোলাহাটে প্রতিদিন বিক্রি কোটি টাকার আম, দাম কম হতাশ আম ব্যবসায়ীরা

88

ভোলাহাটে প্রতিদিন বিক্রি কোটি টাকার আম, দাম কম হতাশ আম ব্যবসায়ীরা

চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলার একমাত্র আমবাজার আম ফাউন্ডেশনে আমের বাজার জমে উঠেছে। প্রতিদিন এ বাজারে কোটি টাকার আম বিক্রয় হলেও আমের দাম কম হওয়ায় ব্যবসায়িরা হতাশ হয়ে পড়েছেন।
আমের দাম কম হওয়ার পিছনে কারণ খুঁজতে গিয়ে আম ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক চুটু জানান, ভোলাহাটের আমে কখনও ফরমালিন মিশানো হয় না। তারপরও গত বছর ফরমালিন মেশানোর অজুহাতে ব্যাপক অপপ্রচার চালানোর কারণে গত বছরের প্রভাবটি এবছর পড়ায় আমের দাম কম রয়েছে। তবে তিনি ঢাকায় কৃষি মন্ত্রীর উপস্থিতিতে একটি বিশাল সেমিনারে ফরমালিন মেশানোর অপপ্রচারের বিষয়টি তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ভোলাহাটের আমে বিন্দুমাত্র ত্রুটি থাকলে সকল শাস্তি মাথা পেতে নেয়া হবে। ভোলাহাটের আম ব্যবসায়িদের যাতে কোন প্রকার হয়রাণী করা না হয় সে জন্য সরকারের কাছে এ দাবি জানান তিনি।
এদিকে আম ব্যবসায়ি আরমান,আনসার আলী মেম্বর, নজরুল ইসলাম জানান, প্রচন্ড গরমে আম পেকে গেলেও আম পাড়ার নির্দিষ্ট সময় সীমা বেঁধে দেয়ার কারণে আম পাড়া সম্ভব হয়নি। ফলে প্রশাসনের বেঁধে দেয়া সময় সীমার পর থেকে এক সাথে আম পাড়া শুরু হলে বাজারে প্রচুর আমের সরবরাহ হচ্ছে। যার কারণে  আমের দাম উঠছেনা। এ দিকে খিরসাপাত( হিমসাগর) আম ১ হাজার থেকে ১ হাজার ৩ শত টাকা, লখনা ৭শত থেকে ১ হাজার টাকা এবং বিভিন্ন জাতের গুটি আম সাড়ে ৪শত থেকে ৭শত টাকা মণ দরে বিক্রয় হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে আম সরবরাহের ক্ষেত্রে পরিবহন জটিলতার মধ্যে পড়ছে কিনা এমন প্রশ্নে আম ব্যসায়ীরা এ জানান, কোন প্রকার অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে না এবং প্রশাসনিক সহায়তা খুব ভালো আছে বলে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।