ভোলাহাটে উদ্ধার হওয়া মূর্তি দুটি গেল জাতীয় জাদুঘরে

28

চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলার একটি মাঠ থেকে মাটি খনন করার সময় উদ্ধার হওয়া কষ্টিপাথরের মূর্তি দুটি বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরে হস্তান্তর করা হয়েছে। সোমবার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জাতীয় জাদুঘরের তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দলের কাছে মূর্তি দুটি হস্তান্তর করেন জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁন।
হস্তান্তর অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার, চাঁপাইনবাবগঞ্জের উপপরিচালক ও সরকারের উপসচিব দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও; অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম; অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আনিছুর রহমান; অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আসিফ আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) পাপিয়া সুলতানা; সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার রওশন আলীসহ জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেগণ উপস্থিত ছিলেন।
জেলা প্রশাসক জানান, গত ২৩ জানুয়ারি বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ভোলাহাট উপজেলার ৩নং দলদলী ইউনিয়নের পুরাতন বারইপাড়া গ্রামের আমড়ী ট্রাইড (ডাইং) নামক স্থানে মো. শুকুরুদ্দিন নামের এক ব্যক্তির নিজস্ব জমিতে নালা করার উদ্দেশ্যে খননকালে কর্মরত শ্রমিক মূর্তি দুটি দেখতে পান। খবর পেয়ে ভোলাহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার, পুলিশ, বিজিবি, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, ওয়ার্ড সদস্য, গ্রামপুলিশের উপস্থিতিতে মূর্তি দুটি উদ্ধার করে প্রশাসনের সহযোগিতায় রাত ৯টায় জেলা ট্রেজারিতে সংরক্ষণ করা হয়। ওই দিন রাতেই মূর্তি দুটি জেলা ট্রেজারিতে রেজিস্টারভুক্ত করা হয় এবং সংরক্ষণ করা হয়। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মহোদয়কে জানানো হয়। এর প্রেক্ষিতে জাতীয় জাদুঘরের তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল মূর্তি দুটি নেয়ার জন্য এখানে এসেছেন।
প্রতিনিধি দলে ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের উপকিপার দিবাকর সিকদার, সহকারী কিপার গোলাম কাউছার ও তাহমিদুন নবী।
দিবাকর সিকদার বলেনÑ মূর্তি দুটির মধ্যে একটি হচ্ছে বিষ্ণুর বাহন গরু এবং অন্যটি দেবী পার্বতীর। ধারণা করা হচ্ছে এই মূর্তি দুটি বেলে পাথরের। অতিমূল্যবান এই মূর্তি দুটি একাদশ বা দ্বাদশ শতকে তৈরি। এই মূর্তি দুটি গবেষণায় হয়ত নতুন ইতিহাস বেরিয়ে আসতে পারে। এসময় তিনি জানান, এর আগেও চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে উদ্ধার হওয়া প্রতœনিদর্শন জাতীয় জাদুঘরে রয়েছে। এ দুটিও সংক্ষণ করা হবে। জাতীয় জাদুঘর একুশে পদক পাওয়ায় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সংশ্লিষ্টদের কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন করেন।