ভাসানচরে পৌঁছেছেন আরো ১৯৯৭ রোহিঙ্গা

4

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচরে ১৩তম দফায় আরো ১ হাজার ৯৯৭ রোহিঙ্গা পৌঁছেছেন। বুধবার দুপুরে নৌবাহিনীর পাঁচটি জাহাজে করে পর্যায়ক্রমে তারা ভাসানচরের পন্টুনে নামেন। এ নিয়ে কক্সবাজার থেকে ভাসানচরের আশ্রয়ণ কেন্দ্রে পৌঁছানো রোহিঙ্গা নাগরিকের সংখ্যা দাঁড়াল ২৭ হাজার ৫৮১ জন।
ভাসানচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম বুধবার বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ১ হাজার ৯৯৭ রোহিঙ্গাকে জাহাজ থেকে নামানোর পর নৌবাহিনীর পন্টুন সংলগ্ন হেলিপ্যাডে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখান থেকে গাড়ির মাধ্যমে ৭১, ৭২, ৮৪ ও ৮৫ নং ক্লাস্টারে বসবাসের জন্য হস্তান্তর করা হয়েছে।
রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসন প্রকল্পের আওতায় ২০২০ সালের ৪ ডিসেম্বর প্রথম দফায় ১ হাজার ৬৪২ জন, ২৯ ডিসেম্বর দ্বিতীয় দফায় ১ হাজার ৮০৪ জন, ২০২১ সালের ২৯ ও ৩০ জানুয়ারি তৃতীয় দফায় ৩ হাজার ২৪২ জন, ১৪ ও ১৫ ফেব্রুয়ারি চতুর্থ দফায় ৩ হাজার ১৮ জন, পঞ্চম দফায় ৩ ও ৪ মার্চ ৪ হাজার ২১ জন, ষষ্ঠ দফায় ১ ও ২ এপ্রিল ৪ হাজার ৩৭২ জন, সপ্তম দফায় ২৫ নভেম্বর ৩৭৯ জন, অষ্টম দফায় ১৮ ডিসেম্বর ৫৫২ জনকে ভাসানচরে আনা হয়। এরপর নবম দফায় ২০২২ সালের ৬ জানুয়ারি ৭০৫ জন, দশম দফায় ৩১ জানুয়ারি ১ হাজার ২৮৭ জন, একাদশ দফায় ১ হাজার ৬৫৫ জন ও দ্বাদশ দফায় ২ হাজার ৯৮২ রোহিঙ্গাকে ভাসানচর স্থানান্তর করা হয়েছে।