ভারতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮

8

ভারতের উত্তরপ্রদেশ রাজ্যে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় ৮ জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে একটি শিশুও রয়েছে। গাড়ির দরজায় সেন্ট্রাল লক থাকায় সংঘর্ষের পর দরজা খোলা সম্ভব হয়নি। ট্রাকের সঙ্গে গাড়িটির সংঘর্ষ হওয়ার পরে বন্ধ গাড়িতেই আগুন ধরে যাওয়ায় দগ্ধ হয়ে হতাহতের ঘটনা ঘটে। গত শনিবার ভয়াবহ এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। গতাকাল রোববার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তরপ্রদেশে গতকাল গভীর রাতে হাইওয়েতে ট্রাকের সঙ্গে গাড়ির সংঘর্ষের পর আগুন লেগে এক শিশুসহ আট যাত্রী দগ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন। পুলিশ জানিয়েছে, দুর্ঘটনার শিকার ওই গাড়িটি সেন্ট্রাল লক করা ছিল। বেরেলির এই দুঘর্ঘটনায় নিহতদের সাতজন প্রাপ্তবয়স্ক এবং অন্যজন শিশু।

এনডিটিভি বলছে, দুর্ঘটনাস্থলের ভিডিও ফুটেজে জ্বলন্ত গাড়িটিকে নৈনিতাল হাইওয়েতে ট্রাকের পাশে দেখা গেছে। দুর্ঘটনার পর গাড়ির দরজা সম্ভবত জ্যাম হয়ে যায় এবং খোলেনি। এতেই ভেতরে আটকে দগ্ধ হন তারা। প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, মধ্যরাতে উত্তরপ্রদেশ থেকে আসা গাড়িটির আচমকাই টায়ার ফেটে যায়। একপর্যায়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে হাইওয়ের উল্টোদিকের লেনে ঢুকে যায় গাড়িটি। সেই সময়ই ওই লেন দিয়ে হরিদ্বার থেকে বালিবোঝাই একটি ডাম্পার আসছিল। ট্রাকটির গতি বেশি থাকায় সজোরে সংঘর্ষ হয় গাড়িটির সঙ্গে। এছাড়া ধাক্কা মারার পর গাড়িটিকে কিছুটা টেনে নিয়ে যায় ট্রাকটি। এরপরই গাড়িতে আগুন ধরে যায়।

সংঘর্ষের জেরে গাড়ির সবকটি দরজার লকই বিকল হয়ে যাওয়ায় দরজা খোলেনি। ফলে গাড়ির ভেতরেই আটকে পড়েন এক শিশুসহ আটজন যাত্রী। গাড়িতে পুড়ে সকলের মৃত্যু হয়। আগুন ধরে যায় ট্রাকটিতেও। বেরেলির সিনিয়র সুপারিনটেনডেন্ট সুশীল চন্দ্র ভান ধুলে বলেন, গাড়িটি বিপরীত লেনে ঢুকে একটি ট্রাককে ধাক্কা দেয়। গাড়িটি কেন্দ্রীয়ভাবে লক করা ছিল, তাই আগুনের কারণে ভেতরে থাকা লোকেরা প্রাণ হারিয়েছেন। নিহত যাত্রীরা একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, তাদের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।