ভারতের প্রবৃদ্ধির চালিকাশক্তি হচ্ছে ভোক্তা খাত

3

ভারতের ভোক্তা খাত দেশটির অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির চালিকা শক্তি হয়ে উঠছে। জনগণের আয় ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়ায় এমনটি ঘটছে। যুক্তরাষ্ট্রের বহুজাতিক বিনিয়োগ ব্যাংক ও আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান গোল্ডম্যান স্যাকসের পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী ২০২৭ সাল নাগাদ ভারতে বছরে ১০ হাজার মার্কিন ডলারের বেশি আয় বা উপার্জন করে এমন মানুষের সংখ্যা প্রায় ১০ কোটি ছাড়িয়ে যাবে।

বর্তমানে বিশ্বের পঞ্চম বৃহৎ অর্থনীতি ভারতে ৬ কোটি মানুষ বা ৪ শতাংশ কর্মজীবী বছরে ১০ হাজার ডলার বা এর চেয়ে বেশি পরিমাণ আয় করেন। মার্কিন ডলারে উপার্জিত এই আয় বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১১ লাখ টাকার মতো। অর্থাৎ ভারতে তিন বছর পর মাসে ৯২ হাজার টাকা আয় করবেন, এমন মানুষের সংখ্যা দাঁড়াবে ১০ কোটি। ২০১৫ সালে দেশটিতে এ রকম মানুষের সংখ্যা ছিল মাত্র ২ কোটি ৪০ লাখ।

সিএনবিসির সংবাদ অনুযায়ী, ভারতীয় নাগরিকদের আয় বৃদ্ধি পাওয়ায় তাদের মধ্যে এখন স্টক মার্কেট তথা শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ বৃদ্ধি, সোনা-গয়না ও সম্পত্তি কেনার হার বাড়ছে। যেমন দেশটিতে ২০১৯ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে সম্পত্তির দাম ৩০ শতাংশ বেড়েছে। একই সময়ে ক্রেডিট কার্ডের সংখ্যা ৫ কোটি থেকে বেড়ে ৯ কোটিতে উঠেছে এবং এই কার্ডের মাধ্যমে ব্যয়ও বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। জনগণের আয় বৃদ্ধির সুবাদে বিভিন্নভাবে ব্যয় ও বিনিয়োগের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় ভারতের ভোক্তা খাত দ্রুত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির মূল চালিকা শক্তি হয়ে উঠছে।