ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরে সামরিক সম্পর্ক আরও জোরদার হবার আশা

49

gourbangla logoভারতের প্রথম প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিসেবে মনোহর গোপালকৃঞ্চ প্রভু পারিকরের ঢাকা সফর এবং এখানকার রাজনৈতিক ও সামরিক নেতৃত্বের সঙ্গে তার বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনায় উভয় দেশের সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যকার ‘ঘনিষ্ঠ ও ভ্রাতৃসুলভ’ সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হয়েছে বলে মনে করছে নয়া দিল্লি। দুই দিনের সফর শেষে গত বৃহস্পতিবার ঢাকা ছাড়েন মনোহর। সফরে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ অন্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। প্রতিরক্ষা বিষয়ক সহযোগিতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা উপদেষ্টার সঙ্গে বৈঠক করেন মনোহর। এছাড়া সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনী প্রধান, কোস্টগার্ডের মহাপরিচালক, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। তিনি ঢাকা ছেড়ে যাওয়ার পর এক বিবৃতিতে ভারতীয় হাই কমিশন বলেছে, দুই দেশের স্থল ও নৌ সীমা নিয়ে বিরোধের নিষ্পত্তি এবং উভয় দেশের সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে এই সফর করলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। ভারতের কোনো নিকট প্রতিবেশী দেশে কোনো প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর এটাই প্রথম সফর এবং এটা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সরকারের বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কের গুরুত্বকে ইঙ্গিত করে। বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনীর সক্ষমতা বৃদ্ধিতে অনেকগুলো ‘নতুন উদ্যোগের’ প্রস্তাব দিয়েছেন মনোহর পারিকর। হাই কমিশন বলছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাংলাদেশের আত্মনির্ভরশীলতা অর্জনের লক্ষ্যের প্রতি ভারতের পূর্ণ সমর্থনের বার্তা নিয়ে এসেছেন তিনি। তার সফরে প্রশিক্ষণ সহযোগিতা বৃদ্ধি, যৌথ মহড়া আয়োজন, দুর্যোগে উদ্ধার তৎপরতা ও ‘ব্লু ইকোনোমি’ কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর শুভেচ্ছা বার্তা পৌঁছে দেন তিনি। তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের দিকে তাকিয়ে আছেন তার দেশের প্রধানমন্ত্রী। সাক্ষাতে ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে ব্যবহৃত একটি হেলিকপ্টারের রেপ্লিকা ও প্যারাট্রুপারদের ছবি প্রধানমন্ত্রীকে হস্তান্তর করেন। হেলিকপ্টারের রেপ্লিকা আগারগাঁওয়ে মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘরে প্রদর্শিত হবে। ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে দেশটির সেনা ও নৌবাহিনীর ভাইস চিফ, নৌবাহিনীর ডেপুটি চিফ, কোস্টগার্ডের মহাপরিচালক এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা ছিলেন। মনোহর পারিকর ঢাকা সেনানিবাসে শিখা অনির্বানে ফুল দিয়ে স্বাধীনতা যুদ্ধের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। তিন বাহিনীর পক্ষ থেকে তাকে গার্ড অফ অনার দেওয়া হয়। মনোহর ও তার সফরসঙ্গীরা চট্টগ্রামে বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমি পরিদর্শন করেন।