বোরো বীজতলায় প্রস্তুত চারা রোপণ শুরু হচ্ছে শিগগিরই

14

চাঁপাইনবাবগঞ্জে চলতি মৌসুমে ৫২ হাজার ২০০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে জেলা কৃষি অফিস। এজন্য ৩ হাজার ৪৭০ হেক্টর জমিতে বীজতলা প্রস্তুত করেছেন কৃষকরা। চারাও রোপণের উপযোগী হয়েছে। রোপণ কার্যক্রম শিগগিরই শুরু হবে।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এবার জেলায় ৫২ হাজার ২০০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। তার মধ্যে সদর উপজেলায় ১৩ হাজার ২২০ হেক্টর, শিবগঞ্জ উপজেলায় ৭ হাজার ৩৩০ হেক্টর, গোমস্তাপুর উপজেলায় ১৫ হাজার ৭২০ হেক্টর, নাচোল উপজেলায় ৯ হাজার ৬৮০ হেক্টর ও ভোলাহাট উপজেলায় ৬ হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ করা হবে। এই পরিমাণ জমিতে বোরো আবাদের জন্য এরই মধ্যে কৃষকরা ৩ হাজার ৪৭০ হেক্টর জমিতে বীজতলা প্রস্তুত করেছেন। চারাও রোপণের উপযোগী হয়েছে। সামনে সপ্তাহ থেকে পুরোদমে রোপণ শুরু হবে। এদিকে সেচনির্ভর বোরো চাষাবাদের জন্য গভীর, অগভীর, এলএলপি সেচযন্ত্র প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।
জেলা কৃষি অফিসের তথ্যমতে, মোট ১৬ হাজার ৮৭৭টি সেচযন্ত্র রয়েছে। তার মধ্যে ১ হাজার ৬৫১টি গভীর, ১৩ হাজার ৫৯৬টি অগভীর, বিদ্যুৎচালিত এলএলপি ২৯৮টি ও ডিজেলচালিত ১ হাজার ৩৩২টি সেচযন্ত্র রয়েছে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক ড. পলাশ সরকার এইসব তথ্য নিশ্চিত করে বলেনÑ সেচযন্ত্রগুলোর মধ্যে কিছু বিএমডিএ’র এবং কিছু রয়েছে কৃষকের। সামনে সপ্তাহ থেকে বোরো ধানের চারা রোপণ শুরু হবে বলে আশা করা হচ্ছে।
এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-বিএমডিএ’র নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আল মামুনুর রশীদ জানান, বিএমডিএ’র নিজস্ব গভীর নলকূপ রয়েছে ১ হাজার ৫২১টি গভীর নুলকূপ ও ৪২টি এলএলপি।
নাচোল উপজেলার নেজামপুর ইউনিয়নের কৃষক মনিরুল ইসলাম জানান, বীজতলায় বোরো ধানের চারা বেশ ভালো রয়েছে। রোপণ উপযোগী হয়ে গেছে।