বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় : প্রোগ্রাম কারিকুলাম হালনাগাদ করার ক্ষেত্রে কঠোর হচ্ছে ইউজিসি

5

দেশে কর্মরত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষা প্রোগ্রামগুলো হালনাগাদকরণে কঠোর হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। চার বছর পরপর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোগ্রামগুলোর কারিকুলাম হালনাগাদ করার নিয়ম থাকলেও উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো তাতে অনীহা দেখাচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে আগামী জুনের মধ্যে কারিকুলাম হালনাগাদের জন্য ইউজিসির পক্ষ থেকে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে চিঠি দেয়া হয়েছে। তা না হলে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সংশ্লিষ্ট প্রোগ্রামে শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।
সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ইউজিসির অনুমোদিত প্রোগ্রামগুলোর কারিকুলাম ৪ বছর পরপর হালনাগাদ করার নির্দেশনা রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের যেসব প্রোগ্রামের কারিকুলাম এখন পর্যন্ত হালনাগাদ করা হয়নি, আউটকাম বেজড এডুকেশন (ওবিই) টেমপ্লেট অনুযায়ী সেসব প্রোগ্রামের কারিকুলাম প্রণয়ন করে অনুমোদনের জন্য আগামী ৩০ জুনের মধ্যে নির্দিষ্ট নিয়মে কমিশনে পাঠাতে বলা হয়েছে। ওই সময়ের মধ্যে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান প্রোগ্রামগুলোর কারিকুলাম হালনাগাদের জন্য কমিশনে পাঠানো না হলে ওসব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধ করা যাবে না। তবে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষগুলো মতে, ওবিই একটি নতুন পদ্ধতি। সেজন্য এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে আরো কিছুদিন সময় বাড়ানো প্রয়োজন।
সূত্র জানায়, প্রোগ্রাম সিলেবাস অনুমোদন ও হালনাগাদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে একটি নির্দিষ্ট প্রক্রিয়ায় আবেদন করতে হয়। তারপর সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে ইউজিসির বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগ তা হালনাগাদ বা অনুমোদন দেয়। সিলেবাস অনুমোদন বা হালনাগাদের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে কমিশন নির্ধারিত হারে ফি পরিশোধ করতে হয়। স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ের হালনাগাদকৃত সিলেবাস অনুমোদন করতে বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও প্রকৌশল অনুষদ বা স্কুলের ক্ষেত্রে ৫০ হাজার টাকা, ব্যবসায় প্রশাসনের ক্ষেত্রে ৪০ হাজার, কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ক্ষেত্রে ২৫ হাজার এবং অন্যান্য প্রোগ্রামের ক্ষেত্রে ৩০ হাজার টাকা করে ফি পরিশোধ করতে হয়। তাছাড়া ডিপ্লোমা বা পোস্টগ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমার (ছয় মাস থেকে এক বছর) ক্ষেত্রে ২০ হাজার করে ফি জমা দিতে হয়। আর ৩ থেকে ৬ মাসের সার্টিফিকেট কোর্সের সিলেবাস অনুমোদন প্রক্রিয়ায় ১৫ হাজার টাকা করে ফি দিতে হয়। আর হালনাগাদের ক্ষেত্রে ফির পরিমাণ অর্ধেক।
সাম্প্রতিক বছরগুলোয় ওবিই কারিকুলাম প্রণয়ন ও বাস্তবায়নে ইউজিসির পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে বেশ জোর দেয়া হচ্ছে। ওবিই কারিকুলাম প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের জন্য ইফজিসির পক্ষ থেকে কয়েক দফা চিঠিও দেয়া হয়েছে। নির্দেশনা প্রদানের পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের জন্য ওবিই কারিকুলাম বিষয়ে প্রশিক্ষণেরও আয়োজন করে আসছে কমিশন। তাছাড়া বিভিন্ন নিজস্ব উদ্যোগেও এ-বিষয়ক কর্মশালার আয়োজন করছে।
সূত্র আরো জানায়, ওবিই কারিকুলাম প্রণয়নের জন্য ইউজিসি সব বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য একটি টেমপ্লেট তৈরি করেছে। গত বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত ইউজিসির ১৫৭তম পূর্ণ কমিশন সভায় ওবিই টেমপ্লেট অনুমোদন করা হয়। ওই সময় টেমপ্লেটটি আরো পরিমার্জন এবং এর মূল্যায়ন অংশকে অধিক কার্যকর করার লক্ষে পরামর্শ দেয়ার জন্য বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করা হয়। পরবর্তী সময়ে ওই বিশেষজ্ঞ কমিটি ওবিই টেমপ্লেটের সংশোধিত সংস্করণ ও মূল্যায়ন অংশ চূড়ান্ত করে।
এদিকে ওবিই কারিকুলাম প্রণয়নের ক্ষেত্রে সাড়া পাওয়া প্রসঙ্গে ইউজিসির বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগের পরিচালক মো. ওমর ফারুখ জানান, অনেক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ই নির্দেশনার আলোকে কারিকুলাম আপডেট করে কমিশনে পাঠিয়েছে। কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় কিছু প্রোগ্রামের কারিকুলাম হালনাগাদ করে পাঠিয়েছে, কিছু এখনো বাকি। অনেকে আবার এ বিষয়ে প্রশিক্ষিত শিক্ষক সংকটের কথাও জানিয়েছে। সব মিলিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পক্ষ থেকে ভালো রেসপন্স পাওয়া যাচ্ছে। আশা করা যায় যারা এখনো পাঠায়নি তারা দ্রুততম সময়ের মধ্যে তা সম্পন্ন করবে। খবর এফএনএস।