বেবি টিথারের রাসায়নিকে ক্ষতিগ্রস্ত হয় শিশু

86

6শিশুরা প্রায়ই হাতের কাছে যা পায় তা মুখে নেওয়ার ও কামড়ানোর চেষ্টা করে। এটা দেখে অনেক বাবা-মা সন্তানদের হাতে বেবি টিথার তুলে দেন। প্লাস্টিকের বা রবারের এসব বেবি টিথার শিশুদের জন্য মোটেই নিরাপদ নয় বলে সাম্প্রতিক এক গবেষণায় জানা গেছে। গবেষকরা জানান, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কিছু বেবি টিথারে মারাত্মক বিষাক্ত এন্ডোক্রাইন-ডিসরাপটিং কেমিক্যাল (ইডিসি) পাওয়া গেছে। আর এগুলো শিশুর নানা ধরনের ক্ষতি করে। শিশুর দেহে ইডিসি যেসব ক্ষতি করতে পারে তার মধ্যে রয়েছে- স্থূলতা, ক্যান্সার ও শিশুবয়সে উদ্বেগ। এছাড়া এটি দেহের হরমোন ভারসাম্যেও বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করতে পারে। এ বিষয়ে সম্প্রতি প্রথম একটি গবেষণা করা হয়েছে। এতে ৫৯টি বেবি টিথার সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়। গবেষকরা জানিয়েছেন, তারা এগুলোতে বিসফেনল এ (বিপিএ), বিসফেনল এস (বিপিএস) ও বিসফেনল এফ (বিপিএফ) পেয়েছেন। এগুলোর সবই দেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। এ বিষয়ে নিউ ইয়র্ক স্টেট ডিপার্টমেন্ট অব হেলথের গবেষক কুরুনথাচালাম কানান বলেন, ‘বিপিএর এ বিকল্পগুলোও সমানভাবে বিপজ্জনক। কিছু ক্ষেত্রে এগুলো আরও বিপজ্জনক। ’এ বিষয়ে গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি জার্নালে।