বিয়ে করলেন রণবীর, কষ্ট পেলেন দীঘি

10

বছর চারেক প্রেমের পর একে-অপরের গলায় মালা দেওয়ার মধ্য দিয়ে ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস কাপুর’ হলেন রণবীর-আলিয়া। আলিয়া ও রণবীরের পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে মুম্বাইয়ের কাপুরদের বান্দ্রার বাড়ি ‘বাস্তু’তে হয় বিয়ের অনুষ্ঠান। সেখানে উপস্থিত ছিলেন নীতু কাপুর, মহেশ ভাট, সোনি রাজদান, শাহিন ভাট, ঋদ্ধিমা কাপুর, কারিনা কাপুর, কারিশমা কাপুর, রণধীর কাপুর, পূজা ভাট, রাহুল ভাট, লাভ রঞ্জন, আয়ান মুখোপাধ্যায়রা। বলিউডের ছবির নায়ক হওয়ায় বাংলাদেশেও তার ভক্তের অভাব নেই।

এই অভিনেত্রী আলিয়া ভাটের সঙ্গে রণবীরের বিয়ে মেনেই নিতে পারছেন না। বলা যায় আলিয়া বিদ্বেষী দীঘি। বলছেন ‘আলিয়ার সঙ্গে বিয়ের ছবি একদমই নিতে পারছি না। ওর (রণবীরে) অন্য কোনও এক্সের সঙ্গে ক্যাটরিনা কিংবা দিপিকার সঙ্গে বিয়ে হলে সেটা মেনে নেওয়া যেত। কিন্তু আলিয়াকে আমি আগে থেকেই নিতে পারি না। ’রণবীরকে পছন্দের কথা জানিয়ে বলেন, ‘এখনও আমার ফোনের ওয়ালপেপারে রণবীরের ছবি দেওয়া। আমার মোবাইলে রণোবীরের আলাদা একটি ফোল্ডারই রয়েছে। তাঁর জন্য আমার ফোনে আলাদা একটা ফোল্টার আছে; সেখানে সব রণবীরের ছবি।’ কষ্ট পেয়ে অনেকেই অনেক কিছজু করে দীঘিও করেছেন।

তিনি খেয়েছেন সারারাত পেস্ট্রি। এমনটাই জানিয়ে তিনি বলেন, কষ্ট পেয়েছি। এই কষ্টে কোনও ডায়েট করতে পারবো না। তাই রণবীরের বাসভবন বাস্তু ভবনের গত বৃহস্পতিবার ভারতীয় সময় তিনটার দিকে সাতপাকে বাঁধা পড়েন রণবীর ও আলিয়া। ‘বাস্তু’র বাইরে এদিন সকাল থেকেই ছিল কড়া পাহারা। আলিয়া-রণবীরের ব্যক্তিগত রক্ষীরা তো ছিলই, সঙ্গে পুলিশ ফোর্সও মোতায়েন করা হয়েছিল সেখানে। এখন শুধু বিয়ের ছবি সামনে আসার অপেক্ষা। এই যুগলকে অয়ন মুখার্জির ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সিনেমায় দেখা যাবে। ছবিটি মুক্তি পাবে আগামী ৯ সেপ্টেম্বর।