বিয়েবাড়িতে যাওয়ার পথে বাস খাদে, নিহত ২৫

46

ভারতের উত্তরাখ-ে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ২৫ জন নিহত হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাতে একটি বাস ৪০ জনেরও বেশি আরোহী নিয়ে বিয়েবাড়িতে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে উত্তরাখন্ডের পাউরি গাড়ওয়ালের সিমদি গ্রামে বাসটি একটি পাহাড়ি খাদে পড়ে গেলে হতাহতের ঘটনা ঘটে। পরে রাতভর অভিযান চালিয়ে ২১ জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বুধবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। রাজ্যের পুলিশ প্রধান অশোক কুমার বার্তা সংস্থা এএনআইকে জানিয়েছেন, গত মঙ্গলবার রাতে ধুমকোটের বিরোখাল এলাকায় বাসটি খাদে পড়ে যায়। রাতভর অভিযান চালিয়ে ২৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় পুলিশ ও এসডিআরএফের উদ্ধারকর্মীরা ২১ জনকে উদ্ধার করতে সমর্থ হয়।

তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। টুইটারে দেওয়া পোস্টে উত্তরাখ- পুলিশ জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, এই দুর্ঘটনায় ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। ২১ জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর। হরিদ্বার পুলিশের প্রধান স্বতন্ত্র কুমার সিং জানিয়েছেন, জেলার লালধাং থেকে পাউরি জেলার বিরখালের একটি বিয়েবাড়িতে যাচ্ছিল বাসটি। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ও হতাহতের ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পুস্কর সিং ধামি। তিনি বলেছেন, রাজ্য সরকার নিহত ব্যক্তিদের পরিবারের পাশে আছে।

পুস্কর সিং ধামি জানান, রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর (এসডিআরএফ)-এর সদস্যরা ঘটনাস্থলে রয়েছে। কর্তৃপক্ষ যথাসাধ্য চেষ্টা করছে। স্থানীয় গ্রামবাসীও উদ্ধার অভিযানে সহায়তা করছে।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সরকারি টুইটার অ্যাকাউন্টে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ দুর্ঘটনাকে ‘হৃদয়বিদারক’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তিনি নিহতদের পরিবারের প্রতি শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন। আহত ব্যক্তিরা দ্রুত সেরে উঠবেন বলে আশাবাদ জানিয়েছেন তিনি।