বিশ্ব রেকর্ড হয়েও হলো না টবি আমুসানের

13

একই দিনে দুবার বিশ্ব রেকর্ড গড়েও শেষ পর্যন্ত একটাতেই সন্তুষ্ট থাকতে হলো নাইজেরিয়ার অ্যাথলেট টবি আমুসানকে। মেয়েদের ১০০ মিটার হার্ডলসের ফাইনালে তার ১২.০৬ টাইমিং শুরুতে বিশ্ব রেকর্ড বলা হলেও পরে সিদ্ধান্তে পরিবর্তন আসে। কারণ, বাতাসের গতি ছিল নির্ধারিত সীমার চেয়ে বেশি। যুক্তরাষ্ট্রের ওরিগন প্রদেশের ইউজিনির হেওয়ার্ড ফিল্ডে রোববার এই ইভেন্টের সেমি-ফাইনালে ১২.১২ সেকেন্ড সময় নিয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়েন ২৫ বছর বয়সী আমুসান। ভেঙে দেন যুক্তরাষ্ট্রের কেনি হ্যারিসনের ২০১৬ সালে গড়া ১২.২০ সেকেন্ডের আগের বিশ্ব রেকর্ড। ঘণ্টা দুয়েক পরই পদকের লড়াইয়ে ফের ট্র্যাকে নামেন আমুসান।

আরও গতি তুলে দৌড় শেষ করেন ১২.০৬ সেকেন্ডে! কিন্তু ওই যে, বাতাসের গতির জটিলতা। টোকিও অলিম্পিকসে ও গত বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে চতুর্থ হয়েছিলেন তিনি। এখানে এসে একই রাতে জোড়া বিশ্ব রেকর্ড গড়া না হলেও ভালোলাগার শেষ নেই আমুসানের। “লক্ষ্য ছিল ট্র্যাকে নামা ও সোনার পদক জেতা।” “নিজের সামর্থ্যে বিশ্বাস ছিল। কিন্তু এই চ্যাম্পিয়নশিপে বিশ্ব রেকর্ড গড়ব, সেই আশা করিনি। সবসময় চাওয়া থাকে পরিকল্পনা ঠিকঠাক কাজে লাগিয়ে দৌড়ানো এবং চ্যাম্পিয়ন হওয়া। তাই, বিশ্ব রেকর্ডটা একটা বোনাস।” জ্যামাইকার ব্রিটানি অ্যান্ডারসন রুপা ও টোকিও অলিম্পিকসে এই ইভেন্টের বিজয়ী পুয়ের্তো রিকোর জ্যাসমিন কামাচো-কুইন ব্রোঞ্জ জিতেছেন।