বিশ্ববিদ্যালয়ে ইয়োগা চালুর পরিকল্পনা সৌদির

7

শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী বিবেচনায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ইয়োগা বা যোগ ব্যায়াম চালু করতে চায় সৌদি আরব। গত সপ্তাহের শেষের দিকে এ বিষয়ে দেশটির প্রধান কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে চুক্তি হয়েছে বলেও জানিয়েছেন সৌদি ইয়োগা কমিটির প্রেসিডেন্ট নওফ আল মারওয়ায়ি। সৌদি আরবের সরকার ২০৩০ সালের মধ্যে দেশটিকে নানা অর্জনে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে চায়। এরই অংশ হিসেবে উন্নয়নমূলক ও নতুন নতুন কর্মসূচি হাতে নিচ্ছে দেশটি। নউফ আল-মারওয়াই জানান, যোগাসনের উপকারিতা সম্পর্কে দেশবাসীকে অবগত করতে এ পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছেন তারা। এ ব্যাপারে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে তারা প্রস্তাব পাঠিয়েছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো ইয়োগা চালুর ব্যাপারে সম্মত হয়েছে।

ফলে, এবার থেকে সৌদির উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ইয়োগা চলবে। আপাতত কয়েক মাসের জন্য পরীক্ষামূলকভাবে এ কার্যক্রম চলবে। তিনি আরও জানান, শুধু শারীরিক সুস্থতা নয়, মানসিকভাবে সুস্থ থাকার জন্যও ইয়োগা জরুরি। ক্রীড়াক্ষেত্রে শরীরচর্চার সুবিধা নিয়ে জনগণকে সচেতন করা এর অন্যতম একটা লক্ষ্য। ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড প্রমোশন অব নিউজ স্পোর্টস গেমস ইন ইউনিভার্সিটিজ নামের ওই অনুষ্ঠানে নউফ আল-মারওয়াই বলেন, ‘আমাদের ভিশন২০৩০ অর্জনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলোর মধ্যে একটি হলো ক্রীড়া কার্যক্রমে অংশগ্রহণ বাড়ানো। ক্রীড়াক্ষেত্রে আন্তর্জাতিকভাবে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনও একটি লক্ষ্য।’

নউফ আল-মারওয়াই আরও বলেন, ‘নানা ধরনের আসন, প্রাণায়াম ও ধ্যানের মতো যোগাসনের একাধিক ক্রিয়াকলাপ শরীর ও মনকে সতেজ করে তোলে। হয়তো অনেকেই আছেন, যারা বিভিন্ন আসন প্রদর্শনে দক্ষ, আমরা তা জানি না। বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু হলে সেগুলোও আমরা বুঝতে পারব। সবার মধ্যকার সুপ্ত প্রতিভা সামনে চলে আসবে। আর এতে খেলাধুলার ক্ষেত্রে সহযোগিতা বাড়বে। ইয়োগা বিশ্বের অন্যতম পুরোনো শারীরিক কসরতগুলোর একটি। এর বিকাশ ঘটেছিল ভারতীয় উপমহাদেশে। সূত্র: আরব নিউজ