বিদেশি পর্যটকদের জন্য জাপানের দরজা খুললো

6

করোনাভাইরাসের কারণে দুই বছর সীমান্ত বন্ধ রাখার পর এবার বিদেশি পর্যটকদের জন্য দ্বার খুলে দিয়েছে জাপান। তবে জারি রাখা হচ্ছে নতুন কিছু কড়া নিয়ম। আবার সব দেশও নয়, বরং এ যাত্রায় বিশ্বের প্রায় ১০০ দেশ ও অঞ্চলের পর্যটকরা গত শুক্রবার থেকে জাপানে ঢোকার অনুমতি পাচ্ছেন। নতুন বিধিনিষেধের আওতায় ভ্রমণকারীরা সরকার অনুমোদিত প্রাইভেট প্যাকেজ ট্যুরে জাপানে যেতে পারবে। তাদেরকে চিকিৎসা বীমাও কিনতে হবে এবং সব জনসমাগম এলাকায় মাস্ক পরতে হবে। পর্যটকরা বিভিন্ন স্থানে নিজেরা অবাধে ঘুরতেও পারবেন না। তাদের সঙ্গে সব সময়ই থাকবে ট্যুর পরিচালনাকারীরা। দীর্ঘ দু’বছর বন্ধের পর সীমান্ত খুলে দেওয়ার কারণে এবছর জাপানে প্রথমবারের মতো বেশ কিছু নতুন পর্যটক সমাগম হতে চলেছে। তেমনই একজন নিসা রোনাইনি। এবছর প্রথম জাপানে যাচ্ছেন তিনি। এশিয়াতেও এটি তার প্রথম সফর। এতদিন টিভি শো’তে দেখে আসা জাপানকে সচক্ষে দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় আছেন তিনি। নিসার মতো আরও অনেকেই জাপানে ছুটি কাটাতে যাওয়ার জন্য খোঁজখবর নিচ্ছেন বলে বিবিসি-কে জানিয়েছে কয়েকটি ট্রাভেল এজেন্সি। কড়া বিধিনিষেধের কারণে কেউ কেউ জাপানে পা না বাড়ালেও সেখানে যেতে আগ্রহীদের সংখ্যা বেড়ে যেতেই দেখছে ট্রাভেল এজেন্সিগুলো। সিঙ্গাপুরের চ্যান ব্রাদারস ট্রাভেল এজেন্সি জানিয়েছে, তারা জাপানে ৫০ টি ট্যুর গ্রুপের বুকিং পেয়েছে। প্রতিটি গ্রুপে ৩০ জন পর্যন্ত মানুষ আছে।