বিটিআরসিকে ৩১৮ কোটি ৫২ লাখ টাকা দিলো রবি

70

02রবি ও এয়ারটেল একীভূতকরণ বাবদ বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) ৩১৮ কোটি ৫২ লাখ টাকা দিয়েছে রবি। রোববার বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদের কাছে চেক তুলে দেন রবি কর্মকর্তারা। বিটিআরসি জানায়, একীভূতকরণ (মার্জার) কার্যক্রম ফি বাবদ ১শ’ কোটি টাকা ও তরঙ্গ সমন্বয় বাবদ ৩শ’ ৭ কোটি টাকাসহ ৪শ’ ৭ কোটি টাকার ভ্যাট ও ট্যাক্সসহ ৪শ’ ২৭ কোটি ৩৪ লাখ এককালীন অথবা তিন কিস্তিতে সরকার এবং বিটিআরসির যথাযথ শর্তসাপেক্ষে পরিশোধের জন্য ইতোমধ্যে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। অবশিষ্ট ১শ’ ৮ কোটি ৮৩ লাখ টাকা দুই কিস্তিতে পরিশোধ করার অঙ্গীকার করেছে রবি। বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আহসান হাবিব খান, রবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, চিফ করপোরেট অ্যান্ড পিপল অফিসার মতিউল ইসলাম নওশাদ, কোম্পানি সেক্রেটারি ও নির্বাহী ভাইস-প্রেসিডেন্ট (রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স) মোহাম্মদ শাহেদুল আলম এবং এয়ারটেলের সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পিডি শর্মা উপস্থিত ছিলেন। গত ১৬ নভেম্বর (বুধবার) একীভূত কোম্পানি হিসেবে বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু করে রবি। রবি ও এয়ারটেল একীভূতকরণের পর একীভূত কোম্পানিটি রবি আজিয়াটা লিমিটেড নামে পরিচালিত হবে। ‘রবি’ ব্র্যান্ডের পাশাপাশি রবি আজিয়াটার একটি স্বাধীন ব্র্যান্ড হিসেবে থাকবে ‘এয়ারটেল’। একীভূতকরণ প্রক্রিয়া শেষে রবির সিংহভাগ অর্থাৎ, ৬৮ দশমিক ৭ শতাংশ মালিকানায় রয়েছে আজিয়াটা। ভারতী এয়ারটেলের ২৫ শতাংশ এবং বাকি ৬ দশমিক ৩ শতাংশের মালিক জাপানের এনটিটি ডোকোমো। একীভূতকরণ শেষে বর্তমানে অপারেটরটির মোট গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ৩ কোটি ২২ লাখ। একীভূতের পর রবি দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটর হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশে একীভূত হয়ে ব্যবসা পরিচালনার সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের লক্ষ্যে ২০১৫ সালের ৯ সেপ্টেম্বর উভয়পক্ষের আলোচনা শুরুর ঘোষণার মধ্যদিয়ে একীভূতকরণের প্রক্রিয়া শুরু হয়।