বার্সা রেফারির সাহায্য পায় মনে করেন না আনচেলত্তিই

83

03-anchelottiগত সপ্তাহে বার্সেলোনার সঙ্গে ‘বিতর্কিত’ ম্যাচের পর ফিলিপে লুইসের মন্তব্য মনে আছে? স্প্যানিশ ক্লাবটি উয়েফা ও এর রেফারিদের কাছ থেকে অন্যায্য সুবিধা পায় বলে যে বেফাঁস মন্তব্য করেছিলেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ডিফেন্ডার? ওই ম্যাচের পর থেকেই ওই মন্তব্যের পক্ষে-বিপক্ষে অনেক কথা শোনা যাচ্ছিল। তবে সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ কোচ কার্লো আনচেলত্তি এই ‘ষড়যন্ত্র-তত্ত্বে’ বিশ্বাস করেন না। ইতালিয়ান কোচ বলছেন, বার্সেলোনা রেফারিদের কাছ থেকে অনৈতিক সুবিধা পায় না। ন্যু ক্যাম্পে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগের ওই ম্যাচে ফার্নান্দো তোরেসের গোলে প্রথমে এগিয়ে গিয়েছিল অ্যাটলেটিকো। কিন্তু প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার মিনিট দশেক আগেই তোরেস লাল কার্ড পেয়ে বসায় ১০ জনের দল হয়ে পড়ে ডিয়েগো সিমিওনের দল। লুইস সুয়ারেজের জোড়া গোলে ম্যাচটাও হেরে যায় ২-১ গোলে। ম্যাচের পর লুইস ক্ষোভের সুরে বলেছিলেন, ‘বার্সেলোনাকে আসলে আগলে রাখা হচ্ছে। বার্সা বাদ পড়বে, এমন একটা ভয় আপনি টের পাবেন। এতে উয়েফা যে অনেক কষ্ট পাবে।’ লুইসের ইঙ্গিত পরিষ্কার, ইউরোপের ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা স্প্যানিশ ক্লাবটিকে অবৈধ সুবিধা দেয়। এ জন্যই রেফারিদের কাছ থেকে বাড়তি সুবিধা পায় বার্সেলোনা। ম্যাচের পর তোরেসও রেফারিং নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন।  কিন্তু আসলেই কি তাই? রেফারিদের কাছ থেকে সত্যিই কী অন্যায্য সুবিধা পান মেসি-নেইমার-সুয়ারেজরা? ‘এই পর্যায়ে তেমন কিছু হয় না’, ফুটবলবিষয়ক ওয়েবসাইট গোলকে সাক্ষাৎকারে বলেছেন আনচেলত্তি।  লুইস-তোরেসদের রেফারিং নিয়ে অভিযোগগুলোকে ¯্রফে ‘মানবিক ভুল’ হিসেবেই দেখছেন সাবেক রিয়াল, পিএসজি ও জুভেন্টাস কোচ, ‘রেফারিদের মান এখানে অনেক ভালো। মাঝে মাঝে রেফারিরা ভুল করতে পারেন। কখনো এসব ভুল আপনার পক্ষে যায়, কখনো যায় না।’ বার্সা-অ্যাটলেটিকো ম্যাচে দায়িত্ব পালন করা জার্মান রেফারি ফেলিক্স ব্রিশসহ অন্য রেফারিদের প্রতিও নিজের সম্মানের কথা জানালেন আনচেলত্তি, ‘আমি রেফারিদের কাজটাকে সম্মান করতে চেষ্টা করি। ওঁদের কাজটা মোটেও সহজ নয়। ব্রিশের ইউরোপে বেশ সুনাম আছে। আমার মনে হয় না তিনি বার্সেলোনাকে সাহায্য করেছেন।’
বার্সাকে সাহায্য করার প্রসঙ্গটা সেদিন এসেছে তোরেসের ওই লাল কার্ডের কারণে। গোল করার ১০ মিনিটের মধ্যেই দলকে ১০ জনের বানিয়ে সেদিন মাঠ ছেড়েছেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার। তবে আনচেলত্তি এখানে তোরেসেরই ভুল দেখছেন, ‘লাল কার্ডটাকে তোরেসের বোকামি হিসেবেও দেখা যায়। রেফারির ভুলও হতে পারে, তবে বার্সেলোনা রেফারিদের কাছ থেকে কোনো সাহায্য পায়নি।’
রেফারি না হলেও আনচেলত্তির চোখে অন্য কারও ‘আনুকূল্য’ ঠিকই পাচ্ছে কাতালান ক্লাবটি। সেটি কারা? নিজের অভিজ্ঞতা থেকেই বললেন, ‘আমার প্যারিস সেন্ট জার্মেই তিন বছর আগে যখন চ্যাম্পিয়নস লিগে বার্সেলোনার সঙ্গে খেলল, লিওনেল মেসিই মাঠে নেমে যত ব্যবধান গড়ে দিল, রেফারি নয়। ক্যাম্প ন্যুর সমর্থকেরাও একটা শক্তি।’ সূত্র : গোলডটকম।