বাবুডাইং আদিবাসী আলোর পাঠশালা: হাত ধোয়ার স্টেশন পেয়ে উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থীরা

22

করোনাকালে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর আগামী রবিবার থেকে খুলছে সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। স্বাস্থ্যবিধি মেনে পাঠদান করতে হলে শিক্ষার্থীদের অবশ্যই মাস্ক পরিধান ও বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে শ্রেণিকক্ষে বসতে হবে। আর বিদ্যালয়ে প্রাঙ্গণে হাত ধোয়ার স্টেশন পেয়ে উচ্ছ্বসিত হয়েছে প্রথম আলো ট্রাস্ট পরিচালিত রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের বাবুডাইং আদিবাসী আলোর পাঠশালার শিক্ষার্থীরা।
বেসরকারি সংস্থা ‘ফুড ফর দি হাংরি (এফএইচ)’ সুবিধাবঞ্চিত এসব শিক্ষার্থীদের হাত ধোয়ার স্টেশনটি নির্মাণ করে দেয়।
বুধবার দুপুরে এর উদ্বোধন করেন এফএইচ অ্যাসোসিয়েশনের কর্মসূচি পরিচালক (প্রোগ্রাম ডিরেক্টর) মো. মিজানুর রহমান।
এ স্টেশনে চারজন শিক্ষার্থী নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে একসঙ্গে সাবান দিয়ে হাত ধুতে পারবে। স্টেশনটি টিনের চালা ও চারদিকে লোহার গ্রিল দিয়ে ঘিরে রাখা হয়েছে। নির্মাণকাজটি বাস্তবায়ন করে এফএইচ অ্যাসোসিয়েশনের চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ‘কমপ্রিহেনসিভ ফ্যামিলি অ্যান্ড কমিউনিটি ট্রান্সফরমেশন (সিএফসিটি), ঝিলিম এরিয়া অফিস।
উদ্বোধন অনুষ্ঠান উপলক্ষে বেলা সোয়া ১১টার দিকে সংস্থার কর্মকর্তাদের ঐতিহ্যবাহী নাচগানের মধ্য দিয়ে বরণ করে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে নিয়ে আসে শিক্ষার্থীরা। এরপর বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে পরিচয় পর্ব শেষে মাতৃভাষায় গান গেয়ে শোনায় পাঠশালার শিক্ষার্থীরা। এ সময় সর্বজনীন প্রার্থনা করা হয়।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলী উজ্জামান নূরের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন- এফএইচ অ্যাসোসিয়েশনের কর্মসূচি পরিচালক (প্রোগ্রাম ডিরেক্টর) মো. মিজানুর রহমান ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক আনোয়ার হোসেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন- এফএইচ অ্যাসোসিয়েশনের রাজশাহীর গোদাগাড়ী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার রিজিওনাল প্রোগ্রাম ম্যানেজার তুষার লিও ক্রুস, রিজিওনাল অ্যাকাউন্টেড স্বপন কুমার, ঝিলিম সিএফসিটি এরিয়া টিম লিডার রাজিয়া জান্নাত, স্টেশনের ডিজাইনার ও সংস্থার কনস্ট্রাকশন সুপারভাইজার চিন্ময় কুমার বিশ্বাস, ঊর্ধ্বতন সমাজ প্রণদক (সিনিয়র এনিমেটর) আয়েসা সিদ্দিকা, গ্রাম্য মোড়ল বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সুজারুদ্দিন, ক্ষুদ্র জাতিসত্তার মোড়ল চানু হাসদা, সুরেন কোল টুডু, মাধব কোল সরেন, লগেন সাইচুরিসহ অন্যরা। সঞ্চালনা করেন ঊর্ধ্বতন সমাজ প্রণদক (সিনিয়র এনিমেটর) আনোয়ার হোসেন।