বাপ্পি লাহিড়ীর সেরা দশ হিন্দি সিনেমার গান

12

মূলত ‘ডিস্কো কিং’ নামে পরিচিত বাপ্পি লাহিড়ী। কিন্তু তার সংগীত ক্যারিয়ার ‘ডিস্কো’-এর সীমানায় আবদ্ধ ছিল না। সাড়ে চার দশকের দীর্ঘ সংগীত ক্যারিয়ারে সাড়ে ৬০০ এর বেশি সিনেমায় কাজ করেছেন তিনি। প্রজন্মের পর প্রজন্ম মুগ্ধ হয়েছে তার গানে। বলিউড অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন থেকে তার পুত্র অভিষেক বচ্চন, ধর্মেন্দ্র থেকে তার ছেলে সানি দেওল, সুনীল দত্ত থেকে তার পুত্র সঞ্জয় দত্তÑসবার জন্য গান গেয়েছেন বাপ্পি লাহিড়ী। এক সাক্ষাৎকারে প্রয়াত এই সংগীতশিল্পী বলেছিলেনÑ‘আমি তো করণের (দেওল) জন্যও গান গাইতে প্রস্তুত।’ ৬৯ বছর বয়সে না ফেরার দেশে চলে গেলেন এই বাঙালি সংগীত তারকা। নিজ কর্মের মধ্যে দিয়ে আজীবন ভক্তদের মনে রাজ করবেন তিনি। চলুন দেখে নিই বাপ্পি লাহিড়ীর সেরা দশ হিন্দি সিনেমার গান।
ডিস্কো ড্যান্সার: ‘ডিস্কো ড্যান্সার’ সিনেমার সব কটি গানই সুপার হিট। কোন গানটা ছেড়ে কোনটি বেছে নেবেন তা নিয়ে দ্বন্দ্বে পড়তে হয়। ‘জিমি জিমি আজা আজা’ থেকে ‘ইয়ার আ রাহা হ্যায় তেরা প্যায়ার’ কিংবা এই সিনেমার টাইটেল ট্র্যাক, সবই কালজয়ী গান।
ঝুম ঝুম ঝুম বাবা: ‘কসম পেয়াদা করনে ওয়ালে কি’ সিনেমার জনপ্রিয় গান ‘ঝুম ঝুম ঝুম বাবা’। এই সুপারহিট গানে কণ্ঠ দেন সালমা আগা। এর সংগীত পরিচালনা করেন বাপ্পি লাহিড়ী।
ইয়ার বিনা চেইন কাহা রে: অনিল কাপুর-অমৃতা সিং অভিনীত সিনেমা ‘সাহেব’। এ সিনেমায় ব্যবহার করা হয় গানটি। কম্পোজ করার পাশাপাশি গানটিতে কণ্ঠও দিয়েছিলেন বাপ্পি লাহিড়ী।
তাম্মা তাম্মা: ‘থানেদার’ সিনেমার এই গান বর্তমান প্রজন্মের কাছেও জনপ্রিয়। বরুণ-আলিয়ার ‘বদ্রিনাথ কি দুলহানিয়া’ সিনেমার জন্য রিক্রিয়েট করা হয় গানটি। অরিজিন্যাল গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন অনুরাধা ও বাপ্পি লাহিড়ী।
কাভি আলবিদা না কেহনা (চলতে চলতে): রকস্টার বাপ্পি লাহিড়ীর সুরের ঝাঁপি থেকে বেরিয়েছে ‘চলতে চলতে’-এর মতো রোমান্টিক গানও। কিশোর কুমারের গাওয়া এই গান আজও ভক্তের মনে শিহরণ জাগায়।
নেনো মে স্বপ্না: ‘হিম্মতওয়ালা’ সিনেমার জনপ্রিয় গান এটি। এ গানে ঠোঁট মেলান শ্রীদেবী ও জিতেন্দ্র। গানটিতে কণ্ঠ দেন লতা মঙ্গেশকর ও কিশোর কুমার। সংগীতায়োজন করেন বাপ্পি লাহিড়ী।
আজ রাপট জায়ে তো: একাধিক সেনচুয়াস গানও কম্পোজ করেছিলেণ বাপ্পি লাহিড়ী। সেই তালিকার শুরুর দিকে রয়েছে ‘নমক হালাল’ সিনেমার এই গান। এটি দ্বৈতভাবে গেয়েছেন কিশোর কুমার ও আশা ভোসলে। এর সংগীত পরিচালনা করেন বাপ্পি লাহিড়ী।
দে দে প্যায়ার দে: ‘শরাবি’ সিনেমার এই গানে মদ্যপ অমিতাভের প্রেম নিবেদন যেমন দর্শক মনে দাগ কেটেছিল, তেমনই বাপ্পি লাহিড়ীর সুর দিওয়ানা করেছিল সংগীতপ্রেমীদের। গানটিতে কণ্ঠ দেন কিশোর কুমার। এর কম্পোজ করেন বাপ্পি লাহিড়ী।
রাত বাকি: এ গানটি ব্যবহার করা হয় ‘নমক হালাল’ সিনেমায়। এতে কণ্ঠ দেন আশা ভোসলে, বাপ্পি লাহিড়ী ও শশী কাপুর। বর্তমান প্রজন্মের কাছেও দারুণ জনপ্রিয় ‘রাত বাকি’ গানটি।
উ লা লা: তরুণ প্রজন্ম বাপ্পি লাহিড়ীর গানে পেয়েছে সমকালের স্পন্দন। বর্তমান প্রজন্মের কাছে সমান গ্রহণযোগ্য বাপ্পি লাহিড়ী। তার মিউজিক শুনলে আজও সংগীতপ্রেমিরা নেচে উঠে তার প্রমাণ মেলে ‘ডার্টি পিকচার’ সিনেমার ‘উ লা লা’ গানটি। শ্রেয়া ঘোষাল আর বাপ্পি লাহিড়ীর এই যুগলবন্দি সত্যি আগুন লাগিয়েছিল শ্রোতাদের মনে।