বাংলাদেশি ব্র্যান্ডে পোশাক যাবে ইউরোপের বাজারে

64

02-

বাংলাদেশি পোশাক ইউরোপসহ বহির্বিশ্বে বাজারজাতকরণ ও বিপণন উদ্যোগ নিয়ে প্রথমবারের মতো ‘বাংলাদেশি’ নামে একটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে। যার লক্ষ্য হবে বাংলাদেশি ব্র্যান্ডে দেশের তৈরি পোশাক ইউরোপের বাজারে বাজারজাত করা। তাই ফ্রান্স সফররত বিজিএমইএ‘র সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলামের সাথে এক মতবিনিময় সভা করেছেন ফ্রান্সের ব্যবসায়ী নেতারা। শনিবার প্যারিসের নিউ দিল্লি রেস্টুরেন্টে বাংলাদেশ বিজনেস কন্সাল্টিংয়ের (বিবিসি) আয়োজনে এ সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইকোনোমিক চেম্বারের সভাপতি ও বিবিসির ডিরেক্টর জেনারেল কাজী এনায়েত উল্লাহ, বিশিষ্ট চিংড়ি রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান মর্ডান সি ফিশের চেয়ারম্যান কাজী রেজাউল হক।বিবিসির ডিরেক্টর জেনারেল কাজী এনায়েত উল্লাহ বলেন, ‘বিভিন্ন পোশাক বিপণনকারী প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশের তৈরি পোশাক তাদের নিজস্ব নামে বিক্রি করছে। কিন্তু ইউরোপের বিশাল এই বাজারে বাংলাদেশের নিজস্ব নামে কোনো প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেনি। জারা, এইচএম, সি অ্যান্ড এ, টার্গেট, সিয়ার্স, ক্যারিফোর, জেসি পেনি, গ্যাপ, লিভাইস, টেসকো বা সিলিও’র মতো বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ডের আদলে বাংলাদেশের নিজস্ব ব্র্যান্ডের পোশাক দিয়ে ইউরোপের বাজারে চমকে দিতে চায় বাংলাদেশ বিজনেস কন্সাল্টিং বিবিসি।’বিজিএমইএ’র সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘অতীতে বিশ্ব বাজারে বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের উপর যে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছিল, তা কাটিয়ে উঠে বাংলাদেশি তৈরি পোশাকের চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফ্যাশন রাজধানী খ্যাত প্যারিসে অনন্য এই উদ্যোগ অবশ্যই বাংলাদেশের জন্য গর্বের। এই উদ্যোগ ইউরোপের বাজারে বাংলাদেশকে নতুন করে পরিচিত করবে। এর মাধ্যমে শুধু পোশাক তৈরিতে নয়, নিজস্ব ব্র্যান্ড তৈরিতেও বাংলাদেশ পাবে আলাদা একটি পরিচিত।’সভায় উপস্থিত ছিলেন ফ্রান্স বাংলাদেশ বিজনেস ফোরামের সভাপতি সাত্তার আলী সুমন, সাধারণ সম্পাদক শুভ্রত ভট্টাচার্য্য শুভ, সহ-সভাপতি তাপস বড়ুয়া রিপন, শরিফ আল মোমিন, রজত রায় রাজু, সাংগঠনিক সম্পাদক এমদাদুল হক স্বপন, মুহিত আহমেদ, বিবিসির লজিস্টিক এক্সিকিউটিভ কামাল মিয়া, কামরুল ইসলাম, বেলায়েত হোসেন।