বক্স অফিসে রাজত্ব করছে ‘কার্তিকেয়া ২’

5

আমির খান অভিনীত ‘লাল সিং চাড্ডা’ এবং অক্ষয় কুমার অভিনীত ‘রক্ষা বন্ধন’ বক্স অফিসে ঝড় তুলে নেবে বলে আশা করা হলেও দুর্ভাগ্যবশত তা ঘটেনি এবং দুটি সিনেমাই বক্স অফিসে বিপর্যয়ের মুখে পড়ে। তবে ভারতের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিকে অবাক করে দিয়ে একটি তেলুগু সিনেমা ব্যাপক সাড়া ফেলেছে বলিউড মার্কেটে। টলিউডের নিখিল সিদ্ধার্থের ‘কার্তিকেয়া ২’ বক্স অফিসে পেছনে ফেলে দিয়েছে ‘লাল সিং চাড্ডা’ এবং ‘রক্ষা বন্ধন’-এর মতো সিনেমাকে।

নিখিল সিদ্ধার্থ, অনুপমা পরমেশ্বরন এবং বিখ্যাত বলিউড অভিনেতা অনুপম খের অভিনীত তেলুগু সিনেমা ‘কার্তিকেয়া-২’ তেলুগু রাজ্যে ভালো ব্যবসার পর হিন্দি সংস্করণেও বিপুল পরিমাণে সাড়া পেয়েছে। চলচ্চিত্র বাণিজ্য বিশ্লেষকদের মতে, প্রথম দিন থেকেই ‘কার্তিকেয়-২’ সিনেমার শোয়ের সংখ্যা বাড়ছে। প্রথম দিনে শোয়ের সংখ্যা ছিল ৫৩টি, দ্বিতীয় দিনে এটি ১৮১টি, তৃতীয় দিনে এটি ৭১১টি, চতুর্থ দিনে এটি ছিল ১২২৮টি এবং একক পর্দায় শোগুলোর সংখ্যা ১৫৭৫টি পর্যন্ত বেড়েছে। উত্তর ভারতে বেড়েই চলেছে সিনেমাটির শোয়ের সংখ্যা। সিনেমাটি মূলত ভগবান কৃষ্ণের দর্শনের ওপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছিল। দ্বারকা এবং মথুরারও উল্লেখ রয়েছে সেখানে। ভগবান কৃষ্ণ তাঁর জীবনের বেশির ভাগ সময় ছিলেন উত্তরে, ফলে উত্তরের দর্শকদের কাছে এটি ভীষণ চেনা গল্প। আসন্ন শ্রীকৃষ্ণ জন্মাষ্টমীর দিন সিনেমাটি বক্স অফিসে আরো বেশি অর্থ উপার্জন করতে পারে বলে ধারণা সিনেমা বিশ্লেষকদের।

হিন্দি সংস্করণে ‘কার্তিকেয়-২’ মুক্তির প্রথম দিনে সাত লাখ টাকা অর্জন করেছে। এটি দ্বিতীয় দিনে ২৮ লাখ টাকা সংগ্রহ করেছে। তৃতীয় দিনে ১.১০ কোটি এবং চতুর্থ দিনে এক কোটি টাকা। এ ছাড়া হিন্দি মার্কেটে মুক্তির পর ছয় দিন শেষে ভারতে এই সিনেমাটির মোট সংগ্রহ ৩৪ কোটি রুপিতে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘কার্তিকেয়া’ সিনেমাটি। দীর্ঘ আট বছর পর ২০২২ সালে মুক্তি পেল সিনেমাটির দ্বিতীয় পর্ব। প্রথম পর্বের মতো দ্বিতীয় পর্বেও সাফল্য ধরে রেখেছে সিনেমাটি। বলিউডের বড় বড় বিশ্লেষক ও অভিনেতারা সবাই মিলে অবাক হয়ে উঠতি নায়কের এই তেলুগু সিনেমার সফলতা দেখছেন! সূত্র : বলিউড হাঙ্গামা।