ফের একসঙ্গে ববিতা-রণধীর

13

নায়ক নায়িকা আলাদা হয়ে যাওয়ার গল্প সিনেমার পর্দায় প্রায়ই দেখেন দর্শক। তাদের বাস্তব জীবনেই ঘটেছিল এমনটা। ১৭ বছর সংসার করার পর আলাদা হয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তারা। কিন্তু কখনও তাদের আইনি বিচ্ছেদ হয়নি। তবে একসঙ্গে থাকতেন না বহু বছর। বলছি কারিশমা এবং কারিনা কাপুরের বাবা-মা একসময়ের বলিউড কাঁপানো জুটি রণধীর কাপুর এবং ববিতার কথা।

রণধীর ও ববিতা যে সময় সংসার পেতেছিলেন তখন বিয়েকে মূলত একটা ধর্মানুষ্ঠান বলেই দেখা হত। তখন স্বামী-স্ত্রীর বিচ্ছেদ, আলাদা হয়ে যাওয়া এই বিষয়গুলি খুব একটা ভাল চোখে দেখা হত না। সেই সময় দাঁড়িয়ে আশির দশকের শেষ দিকে রণধীর কাপুরের থেকে ববিতা দূরে সরে যান। কারিশ্মা এবং কারিনাকে নিয়ে বেরিয়ে আসেন আরকে বাংলো থেকে। দুই সন্তানকে একা হাতে মানুষ করেন। সম্প্রতি কাপূর পরিবারের ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম আনন্দবাজার তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে ৩৫ বছর আলাদা থাকার পর আবারও একসঙ্গে এক ছাদের তলায় থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ববিতা ও রণধীর।

মা-বাবা আবার এক হওয়ায় খুশি দুই মেয়েই। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে বলিপাড়ায় গুঞ্জন ছড়িয়েছে তারা নাকি গত সাত মাস ধরেই একসঙ্গে রয়েছেন। তবে তারা দীর্ঘদিন আলাদা থাকলেও কাপূর পরিবারের সব রকমের দায়িত্ব এবং কর্তব্য এতদিন পালন করে এসেছেন ববিতা। তারা দু’জনেই আপাতত বান্দ্রার বাড়িতে নতুন ভাবে সংসার পেতেছেন। প্রসঙ্গত সত্তর দশকের সফল অভিনেতা ছিলেন রণধীর কাপুর। ববিতাও বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন সে কালে। তাদের দুই সন্তানই বলিপাড়ার সফল অভিনেত্রী। কারিনা দুই ছেলেকে নিয়ে সুখে সংসার করছেন। কারিশমার দুই ছেলেমেয়ে বড় হয়ে গিয়েছে।