দৈনিক গৌড় বাংলা

শনিবার, ১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

ফটোগ্রাফারদের ওপর চটেছেন নোরা

সময়টা এমন, আলোচনার সঙ্গে সমালোচনা সমান্তরালে আসে। যেমন নোরা ফাতেহি যখন থেকেই বলিউডে বড় প্রজেক্ট পেতে শুরু করলেন, তার পরিচিতি বাড়তে থাকলো, তখন থেকেই তাকে নিয়ে ট্রল-নিন্দা চলছে। তার আগের এবং বর্তমানের শারীরিক অবয়ব নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় হরহামেশাই ট্রল করে নেটিজেনরা। তবে নোরা জানালেন, তিনি তার শরীর নিয়ে গর্বিত। নিউজ ১৮-এর সাক্ষাৎকারে ‘দিলবার’ গার্ল বলেন, ‘এসবই আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ড হয়।

তবে আমার শরীর নিয়ে আমি গর্বিত, এটা আমার সম্পদ। এর জন্য আমি মোটেও লজ্জিত নই।’ প্রসঙ্গটি নিয়ে ফটোগ্রাফারদের ওপরও খেপেছেন নোরা। তার মতে, পাপারাজ্জিরা ইচ্ছাকৃতভাবে অভিনেত্রীদের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ জুম করে ক্যামেরায় ধারণ করেন। বিশেষ করে নোরার পেছন দিক থেকে তোলা ছবি প্রায়ই ভাইরাল হয়। এ নিয়ে নোরার ভাষ্য, ‘আমার মনে হয়, তারা (ফটোগ্রাফার) এরকম নিতম্ব কখনও দেখেনি। এটা (নিতম্ব) যেমন, তেমনই। কিন্তু মিডিয়া শুধু আমার সঙ্গেই নয়, এরকমটা অন্য অভিনেত্রীদের সঙ্গেও করে। হয়ত তারা নিজেদের নিতম্ব জুম করে দেখে না। কারণ সেটা অতো আকর্ষণীয় নয়। আমার মতে, এখানে জুম করার তো কিছু নেই।

তাহলে তারা কিসে মনোযোগ দিচ্ছে?’ এমন পাপারাজ্জিদের উদ্দেশ্যে কিছু বলার নেই ‘সাকি সাকি’তে ঝড় তোলা নোরা। তার মন্তব্য এরকম, ‘জুম করার পেছনে তাদের হয়ত নোংরা দৃষ্টিভঙ্গি আছে। কিন্তু আমি তো প্রত্যেকের কাছে গিয়ে শিক্ষা দিতে পারবো না। বরং নিজের মতোই আমি চলবো, নিজের শরীর নিয়ে আরও বেশি আত্মবিশ্বাসী হয়ে।’ প্রসঙ্গত, নোরা ফাতেহিকে সর্বশেষ পর্দায় দেখা গেছে ‘ম্যাডগাও এক্সপ্রেস’ ছবিতে। গত ২২ মার্চ মুক্তি পেয়েছে কুনাল খেমু নির্মিত ছবিটি। এতে নোরা ছাড়াও আছেন দিব্যেন্দু, প্রতীক গান্ধী, অবিনাশ তিওয়ারি প্রমুখ। ছবিটি বক্স অফিসে সাফল্য পেয়েছে।

About The Author