প্রয়োজনে চাল আমদানির অনুমতি দেয়া হবে : চাঁপাইনবাবগঞ্জে বাজার নিয়ন্ত্রণে মিলমালিকদের সঙ্গে খাদ্য সচিব

12

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে করণীয় নির্ধারণে চাঁপাইনবাবগঞ্জের চালকল মালিকদের নিয়ে মতবিনিময় করেছেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ইসমাইল হোসেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে তিনি এই মতবিনিময় করেন।
এ সময় তিনি মিলগেটে চালের মূল্য প্রদর্শনের পাশাপাশি চালের বস্তায় তারিখসহ মূল্য লিখে দেওয়ার বিষয়ে মিলারদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ধান থেকে চাল আর চাল থেকে ভাত হয় এটা হচ্ছে আমাদের সংস্কৃতি, এটা আমাদের অহংকার। আমরা ভাত ছাড়া অন্যকিছু ভাবতেই পারি না। কাজেই ধান চালের অবৈধ মজুতের মাধ্যমে বাজার অস্থিতিশীল করার কেউ চেষ্টা করলে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে। তাদেরকে কালো তালিকাভুক্ত করা হবে। একবার কালো তালিকাভুক্ত হলে তারা খাদ্যের ব্যবসা কেন, কোনো ব্যবসায় তিনি করতে পারবেন না। কাজেই আপনারা সরকারকে সহযোগিতা করেন, সরকার আপনাদের পাশে থাকবে।
সচিব বলেন, দেশে চালের কোনো ঘাটতি নেই। তারপরও যদি বাজার নিয়ন্ত্রণে না আসে তাহলে আমরা বিদেশ থেকে চাল আমদানির অনুমতি দিয়ে দিব। তখন এমনিতেই দাম কমে যাবে।
সভায় খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব প্রদীপ কুমার দাস, খাদ্য অধিপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক আব্দুল্লাহ আল মামুন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আনিছুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আসিফ আহমেদ, পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) আবুল কালাম সাহিদ, রাজশাহীর আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক জহিরুল ইসলাম খান, ভারপ্রাপ্ত জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক জাকির হোসেন, নবাব গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আকবর হোসেন, হক অটোরাইস মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হারুণ অর রশিদ, আনোয়ার অটোরাইস মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আনোয়ার হোসেন, এরফান গ্রুপের জেনারেল ম্যানেজার সাইফুল ইসলামসহ অটোরাইস মিল মালিকরা উপস্থিত ছিলেন।