প্রয়াসের উদ্যোগ : কিশোর-কিশোরী ক্লাবগুলোয় মেডিকেল উপকরণ বিতরণ

15

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২২টি কিশোর-কিশোরী ক্লাবে ফাস্টএইড বক্স, বিপি মেশিন, ওয়েট মেশিন ও গ্লুকোমিটার বিতরণ করা হয়েছে। বুধবার সকালে প্রয়াসের নকীব হোসেন মিলনায়তনে এই উপকরণগুলো বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন পিকেএসএফের ব্যবস্থাপক (কার্যক্রম) ড. সৈয়দা খালেদা।
অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন- প্রয়াসের নির্বাহী পরিচালক হাসিব হোসেন, সিভিল সার্জনের প্রতিনিধি মেডিকেল অফিসার ডা. রাকিবুল ইসলাম, প্রয়াসের কনিষ্ঠ সহকারী পরিচালক মু. তাকিউর রহমান, কৈশোর কর্মসূচির সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার মাইনুল ইসলাম, প্রোগ্রাম অফিসার ফারুক হোসেনসহ অন্যরা। পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) এর সহযোগিতায় এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি।
অনুষ্ঠানে প্রয়াসের নির্বাহী পরিচালক হাসিব হোসেন বলেন, বিভিন্ন সময় আমাদের সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় যে পরিবর্তনগুলো হয়েছে, সেগুলোতে তরুণরাই নেতৃত্ব দিয়েছে। আমরা কিন্তু বারবার স্বীকার করে নিচ্ছি, আপনারা স্বেচ্ছায় এই ক্লাবগুলোতে সময় দিচ্ছেন। এর মধ্যদিয়ে আপনারা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছেন, নীতি নৈতিকতা বোধ সমাজ গড়বেন, নিজেকে গড়বেন, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ করবেন, যৌতুক প্রতিরোধ করবেন, সমাজের মানুষকে সুন্দন সুন্দর কথা বলবেন। এর মধ্য দিয়ে সমাজকে আপনারা এগিয়ে নিবেন। আমি আশাবাদী, এই যুব কিশোর-কিশোরীরা এই কাজগুলো সুন্দরভাবে করতে পারবে। ইনশাআল্লাহ তারা পারবে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. সৈয়দা খালেদা বলেন, আমাদের এই কার্যক্রমটা প্রত্যেকটা ইউনিয়নে এমনকি প্রতিটি ওয়ার্ডে সম্প্রসারণ করার উদ্যোগ নিয়েছি। আশা করছি আগামী বছর থেকে এটি চালু হবে। আগামী বছরগুলোতে হয়তো আমরা বছরব্যাপী বিভিন্ন প্রতিযোগিতার আয়োজন করব। যার ফলে কিশোর-কিশোরীরা ক্রীড়ামনস্ক হিসেবে গড়ে উঠতে পারে। তাদের প্রতিভাগুলো বিকশিত করতে পারে। শারীরিক ও মানসিক বিকাশ যাতে সঠিকভাবে হতে পারে।
এর আগে কিশোর-কিশোরীরা তাদের ক্লাবের বিভিন্ন কার্যক্রমের কথা তুলে ধরেন। এসময় কিশোর-কিশোরীরা জানান, প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির কিশোরী ক্লাবের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের উন্নয়নমূলক ও সামাজিক সচেতনতামূলক কাজ তারা করে আসছেন। বিশেষ করে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, নারী নিযাতন, যৌতুক প্রতিরোধ, স্বাস্থ্য সচেতনতা, সামাজিক মূল্যবোধ ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম, মাদকের কুফল সম্পর্কে আলোচনা, করোনাকালীন হতদরিদ্র মানুষের মধ্যে খাদ্যদ্রব্য বিতরণ, হ্যান্ড সানিটাইজেশন, বৃক্ষ রোপণ, পাঠচক্র ও সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা কার্যক্রম ইত্যাদি। তারা আরো জানান, এসব উপকরণ ক্লাবগুলো পাবার ফলে তাদের কার্যক্রম আরো বেগবান হবে। উপকরণগুলো পাওয়ায় প্রয়াস ও পিকেএসএফকে ধন্যবাদ জানান তারা।