প্রেসক্রিপশন ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ বিক্রি না করার শপথ ব্যবসায়ীদের

19

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিশ্ব অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল সচেতনতা সপ্তাহ উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  বুধবার সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসন ও জেলা ওষুধ প্রশাসন এ কর্মসূচির আয়োজন করে।
জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁন। তিনি বলেন- ডাক্তার, ওষুধ বিক্রেতা ও ভোক্তাসহ সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারের বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে হবে। কোনো নিবন্ধিত ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন ছাড়া কেউ অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রি করবেন না। তিনি বলেন- আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্য একটি সুস্থ সুন্দর বাংলাদেশ বিনির্মাণে আসুন আমরা ওষুধের ওপর থেকে নির্ভরতা কমিয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে আমাদের ছোটখাটো রোগ বালাই দমন করি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেনÑ আমাদের প্রত্যেকটি খাবারের মধ্যে প্রাকৃতিকভাবেই রোগপ্রতিরোধী শক্তি আছে, যা আমরা জানি না। তাই আমাদের খাদ্য উৎপাদনের ক্ষেত্রেও সচেতন হতে হবে এবং নিরাপদ খাদ্য উৎপাদন করতে।
অতিরিক্ত জেলা পশাসক (সার্বিক) আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরো বক্তব্য দেনÑ স্থানীয় সরকার, চাঁপাইনবাবগঞ্জের উপপরিচালক দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও; সহকারী কমিশিনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. রুহুল আমিন শরিফ, সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. শাহনাজ খাতুন, জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা ডা. মো. শফিকুল আলম, নাচোল মৎস্য খামারের ব্যবস্থাপক মো. আব্দুর রহিম, বাংলাদেশ ড্রাগিস্ট অ্যান্ড কেমিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিনসহ অন্যরা।
পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে ওষুধ প্রশাসনের গৃহীত পদক্ষেপসমূহ এবং অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন জেলা ওষুধ প্রশাসনের সহকারী পরিচালক মোছাম্মাৎ ফোয়ারা ইয়াছমিন।
আলোচনা সভায় অংশগ্রহণকারী জেলার ওষুধ ব্যবসায়ীরা নিবন্ধিত ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ বিক্রি করবেন না মর্মে শপথ গ্রহণ করেন। জেলা প্রশাসক তাদেরকে শপথবাক্য পাঠ করান।
ভাইরাস সংক্রমণ, ঠা-া ও সর্দি-কাশি চিকিৎসায় অ্যান্টিায়োটিক ব্যবহার না করার পরামর্শ দিয়ে ডা. শাহনাজ খাতুন বলেন- যদি কোনো নিবন্ধিত চিকিৎসক অ্যান্টিবায়োটিক প্রেসক্রিপশনে লেখেন তাহলে যতদিন সেবন করতে বলবেন ততদিন সেবন করতে হবে। তা না হলে দেহের মারাত্মক ক্ষতি হবে।
এর আগে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই জায়গায় এসে শেষ হয়। বেলুন উড়িয়ে বিশ্ব অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল সচেতনতা সপ্তাহের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁন।
উল্লেখ্য, ১৮-২৪ নভেম্বর বিশ^ অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল সচেতনতা সপ্তাহ পালিত হচ্ছে।