প্রধানমন্ত্রীর বিমানে ত্রুটি : কারাগারে দুই কর্মকর্তা

49

gourbangla logoপ্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী উড়োজাহাজে যান্ত্রিক ত্রুটির ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণকারী বিমানের দুই কর্মকর্তাকে দুই দফা রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। এরা হলেন- বিমানের প্রকৌশল কর্মকর্তা এসএম রোকনুজ্জামান ও টেকনিশিয়ান সিদ্দিকুর রহমান। দুই দফায় ১৪ দিনের রিমান্ড শেষে গত বৃহস্পতিবার তাদের ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কাউন্টার টেররিজমের পরিদর্শক মাহবুব আলম। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াসির আহসান চৌধুরী তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এর আগে গত ৫ জানুয়ারি ও ২৮ ডিসেম্বর দুই দফায় সাত দিন করে তাদের রিমান্ডে পাঠায় আদালত। গত ২৭ নভেম্বর হাঙ্গেরি যাওয়ার পথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমানের একটি বোয়িং যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে তুর্কমেনিস্তানের আশখাবাত বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণে বাধ্য হয়। ইঞ্জিন অয়েলের ট্যাংকের একটি নাট ঢিলে থাকায় ওই বিপত্তি ঘটে। এর পেছনে নাশকতা ছিল কি না, তা খতিয়ে দেখতে তিনটি তদন্ত কমিটি হয়। তদন্তের ভিত্তিতে বিমানের নয় কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। পরে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে বিমান কর্তৃপক্ষ। ২২ ডিসেম্বর রোকনুজ্জামান ও সিদ্দিকুর রহমান আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এই মামলার অপর সাত আসামিকেও (বিমানের কর্মকর্তা) দুই দফায় ১৫ দিনের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে কারাগারে পাঠানো হয়। বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে আছেন বিমানের আরও দুই কর্মকর্তা। বিমানের প্রকৌশলী (ইঞ্জিনিয়ারিং অফিসার) নাজমুল হক ও কনিষ্ঠ টেকনিশিয়ান শাহ আলমকে গত সোমবার গ্রেফতার করে পুলিশ।