প্রতিবন্ধীদের ব্যাপারে দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টাতে হবে : জেলা প্রশাসক গালিভ খাঁন

20
জেলায় প্রতিবন্ধী ৪২৪০১ জন
ভাতা পাচ্ছেন ২৮৮৫৫ জন
শিক্ষা উপবৃত্তি পাচ্ছেন ৩৮৭ জন

চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁন বলেছেন, প্রতিবন্ধীদের ব্যাপারে সমাজের দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টাতে হবে। প্রতিবন্ধীদের প্রতিবন্ধী না ভেবে মানুষ ভাবতে হবে। কারণ, আমাদের পবিত্র সংবিধানে সকল নাগরিকের সমান অধিকার দেয়া হয়েছে। কাজেই মৌলিক অধিকারগুলো থেকে তাদেরকে বঞ্চিত করা যাবে না, মানবতা ভূলুণ্ঠিত হয় এমন কোনো কাজ করা যাবে না। তিনি বলেন প্রতিবন্ধীদের প্রতিবন্ধী না বলে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ব্যক্তি বলা ভালো। তাদের জন্য জেলা প্রশাসনের সকল দরজা খোলা। তারা যখনই কোনো সমস্যা নিয়ে আসবেন তখনই জেলা প্রশাসকসহ সকল কর্মকর্তার সঙ্গে দেখা করতে পারবেন।
শনিবার ৩১তম আন্তর্জাতিক ও ২৪তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবসের আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক কথাগুলো বলেন। তিনি আরো বলেন-জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করে যাচ্ছেন। অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নের জন্য তিনি প্রতিবন্ধীদের সামনের কাতারে নিয়ে আসতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। তারই অংশ হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভূমিহীন ও গৃহহীন প্রতিবন্ধীদের জমিসহ ঘর করে দেয়া হয়েছে। তারা সেখানে সেলাই মেশিন, গরুছাগল, হাঁস মুরগি পালন করে জীবিকা নির্বাহ করছেন।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় আলোচনায় অংশ নেন স্থানীয় সরকার চাঁপাইনবাবগঞ্জের উপ-পরিচালক দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মহসীন, সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. রাকিবুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার প্যানেল মেয়র-৩, নাজনীন ফাতেমা জিনিয়া, সিটি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কামাল সুকরানাসহ অন্যরা। সভা সঞ্চালনা করেন জেলা সমাজ সেবা অফিসার (রেজি.) মো. ফিরোজ কবির। প্রতিবন্ধীরা তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন এবং তাদের ভাতা ৫ হাজার টাকা করার জন্য জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে জেলা প্রশাসক বলেন-অঅমি সচিব মহোদয়ের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বলব।
অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নের জন্য পরিবর্তনমুখী পদক্ষেপ: প্রবশেগম্য সমতাভিত্তিক বিশ্বি বিনির্মাণে উদ্ভাবনের ভূমিকা-এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে এবার পালিত হচ্ছে দিবসটি। এ উপলক্ষে জেলা প্রশাসন, জেলা সমাজসেবা কার্যালয়, জেলা প্রতিবন্ধী ও সাহায্য সেবা কেন্দ্র আলোচনা সভা ও হুইল চেয়ার বিতরণের আয়োজন করে। পরে শিশুসহ ৭জন শারীরিক প্রতিবন্ধী নারী ও পুরুষের মাঝে হুইল চেয়ারগুলো বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁন।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় সবমিলিয়ে প্রতিবন্ধীর সংখ্যা ৪২ হাজার ৪০১জন। এর মধ্যে ভাতার আওতায় এসেছেন ২৮ হাজার ৮৫৫জন। এছাড়া ৩৮৭জন পাচ্ছেন শিক্ষা উপবৃত্তি।
এই তথ্য তুলে ধরে জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের কর্মকর্তা মো. ফিরোজ কবির জানান, জেলা অটিজম প্রতিবন্ধী রয়েছেন ৭১৩ জন, শারীরিক ২১ হাজার ৫১০ জন, দীর্ঘস্থায়ী মানসিক অসুস্থতাজনিত ১ হাজার ৮১ জন, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ৬ হাজার ৫৩০জন, বাক ২ হাজার ৪৯১জন, বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ৩ হাজার ৮২৩জন, শ্রবণ প্রতিবন্ধী ১ হাজার ৭৮১ জন, শ্রবণ ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ৯৯ জন, অন্যান্য ২৭৮ জন, সেরিব্রালপালসি প্রতিবন্ধী ২ হাজার ৯৮ জন, বহুমাতৃক প্রতিবন্ধী ১ হাজার ৯৩৯ জন, ডাউন সিনড্রোম প্রতিবন্ধী ৬২ জন।