দৈনিক গৌড় বাংলা

রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

পেরুতে ৭.২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প

 

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ পেরুর ৭ দশমিক ২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। শুক্রবার মধ্য দেশটির মধ্য উপকূলীয় অঞ্চলে এ কম্পন অনুভূত হয়। এ ঘটনায় প্রাথমিকভাবে সুনামি সতর্কতা জারি করা হলেও, পরে তা উঠিয়ে নেওয়া হয়। এদিকে, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, কম্পনটি আটিকুইপা জেলা থেকে ৮ দশমিক ৮ কিলোমিটার (৫ দশমিক ৫ মাইল) দূরে আঘাত হানে। এর শক্তিশালী কম্পন কেন্দ্রস্থলের কাছাকাছি এলাকাতেও অনুভূত হয়। এমনকি, ভূমিকম্পের আঘাত রাজধানী লিমা পর্যন্ত অনুভূত হয়। প্রাথমিকভাবে ইউএসজিএস জানিয়েছিল, এই ভূমিকম্পের ফলে পেরুর উপকূলরেখা বরাবর কিছু এলাকায় সুনামি হতে পারে। তবে প্রশান্ত মহাসাগরীয় সুনামি সতর্কীকরণ কেন্দ্র আগেই জানিয়েছিল, কিছু উপকূলীয় অঞ্চলে বিপজ্জনক সুনামি হতে পারে। তবে পরে সংস্থাটি জানায়, এই ভূমিকম্প থেকে আর সুনামির হুমকি নেই। কারাভেলি শহরের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, আবাসিক এলাকার একটি রাস্তা প্রবলভাবে কাঁপছে ও স্থানীয় লোকজন ঘর থেকে বেরিয়ে আসছে। এ ঘটনায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী গুস্তাভো আদ্রিয়ানজেন জানিয়েছেন, ভূমিকম্পের পরে কোনো মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। অবকাঠামোগত ক্ষয়ক্ষতি মূল্যায়ন ও পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। ৩ কোটি ৩০ লাখ জনসংখ্যার দেশ পেরুতে প্রায়ই ভূমিকম্প হয়ে থাকে। তাছাড়া দেশটি ভূতাত্ত্বিকভাবে ভূমিকম্প প্রবণ অঞ্চল ‘প্যাসিফিক রিং অব ফায়ারে’ অবস্থিত। ফলে এখানে প্রতি বছর শতাধিক ভূমিকম্প হয়ে থাকে। এর আগে ২০২২ সালের মে মাসের শেষের দিকে পেরুর পশ্চিম-উত্তরপশ্চিমাঞ্চলীয় আজাঙ্গারো শহরে ৭ দশমিক ২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছিল। এতে প্রতিবেশি দেশ বলিভিয়ার রাজধানী লা পাজও কেঁপে উঠেছিল। তারও আগে ২০২১ সালের নভেম্বরে পেরুতে ৭ দশমিক ৫ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে। ২০০৭ সালের ১৫ আগস্ট পেরুর মধ্য উপকূলে ৭ দশমিক ৯ মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছিল, যাতে পাঁচ শতাধিক মানুষ প্রাণ হারিয়েছিল। সূত্র: এনডিটিভি, সিএনএন

About The Author