পূর্ণ শক্তির দল নিয়ে উইন্ডিজের অপেক্ষায় অস্ট্রেলিয়া

3

চোট কাটিয়ে উঠেছেন মিচেল স্টার্ক, মার্কাস স্টয়নিস ও মিচেল মার্শ। বিশ্রাম শেষ ডেভিড ওয়ার্নারের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আসছে দুই টি-টোয়েন্টিতে এই চার জনকেই পাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। সবশেষ ভারত সফরে বিশ্রামে ছিলেন অভিজ্ঞ ওপেনার ওয়ার্নার। তার জায়গায় সুযোগ পেয়ে দুর্দান্ত ব্যাটিং উপহার দেন ক্যামেরন গ্রিন। পেশাদার ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ওপেনিংয়ে নেমে করেন দুটি ফিফটি। দলে জায়গা ধরে রেখেছেন তিনি। গোড়ালির গাঁটের চোটে অগাস্ট-সেপ্টেম্বরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের মাঝপথে ছিটকে যান মার্শ। খেলতে পারেননি তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ দুইটিতে।

পরে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ ও ভারত সফরেও ছিলেন না এই পেস বোলিং অলরাউন্ডার। নিউ জিল্যান্ড সিরিজের মাঝপথে সাইড স্ট্রেইনের জন্য ছিটকে যান স্টয়নিস। খেলতে পারেননি তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে। স্টার্ক পান হাঁটুতে চোট। গুরুতর কিছু না হলেও সতর্কতার কারণে ভারত সিরিজে রাখা হয়নি তাদের। চোট নিয়ে ভারত থেকে দেশে ফেরা কেন রিচার্ডসন ও অ্যাশটন অ্যাগারকে রাখা হয়নি ঘরের মাঠে ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে। তাদেরকে ইংল্যান্ড সিরিজে পাওয়ার আশায় অস্ট্রেলিয়া।

সবশেষ সিরিজে ভারতের বিপক্ষে খেলা শন অ্যাবট ও ড্যানিয়েল স্যামস ধরে রেখেছেন জায়গা। আগামী ৫ অক্টোবর মাঠে গড়াবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও অস্ট্রেলিয়ার প্রথম টি-টোয়েন্টি। দুই দিন পর হবে দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের অস্ট্রেলিয়া দল: অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), শন অ্যাবট, প্যাট কামিন্স, টিম ডেভিড, ক্যামেরন গ্রিন, জশ হেইজেলউড, জশ ইংলিস, মিচেল মার্শ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, ড্যানিয়েল স্যামস, স্টিভেন স্মিথ, মিচেল স্টার্ক, মার্কাস স্টয়নিস, ম্যাথু ওয়েড, ডেভিড ওয়ার্নার, অ্যাডাম জ্যাম্পা।