পরিবহন ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিন অতিবাহিত: চাঁপাইনবাবগঞ্জে ধানকাটা শ্রমিকসহ দুর্ভোগে যাত্রীসাধারণ

11

জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিন শনিবার অতিবাহিত হয়েছে। আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লার সকল রুটে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রী সাধারণ। বিশেষ করে ধানাকাটা শ্রমিকরা পড়েন চরম বিপাকে। অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে ব্যাটারিচালিত বিভিন্ন যানবাহনে করে গন্তব্যে পৌঁছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের ধানকাটা শ্রমিকরা। সাধারণ যাত্রীরাও অতিরিক্ত ভাড়া গুণে গন্তব্যে গিয়েছেন।
গতকাল শনিবার সকালে শহরের বিশ্বরোড মোড়ে কথা হয় শিবগঞ্জ থেকে আসা যাত্রী ইসারুল, ময়েজ, শরিফুলসহ কয়েকজনের সঙ্গে। তারা বলেন, বাসে ৬০ থেকে ৭০ টাকায় রাজশাহী যেতে পারতাম; কিন্তু বাস বন্ধ থাকায় সিএনজি অটোরিকশাতে ১৫০ টাকাতে হচ্ছে।
গণপরিবহন বন্ধ থাকায় সড়কপথে চাঁপাইনবাবগঞ্জের সঙ্গে ঢাকাসহ সারাদেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা কার্যত বিচ্ছিন্ন গতকালও বিচ্ছিন্ন ছিল। জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপ, জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপ ও জেলা ট্রাক, ট্যাংক লরি ও কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের নেতা জানিয়েছেন, কেন্দ্রের নির্দেশে তারা ডিজেলচালিত যানবাহন বন্ধ রেখেছেন। তবে তারা আশা প্রকাশ করে বলেছেন, রবিবার (আজ) ঢাকায় সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বৈঠক আছে। ওই বৈঠকে একটা ইতিবাচক ফলাফল আসতে পারে। শনিবার বিকেলে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি এফকেএম লুৎফর রহমান ফিরোজ, জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক বজলার রহমান জাপানি ও জেলা ট্রাক, ট্যাংকলরি ও কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আইয়ুব আলী এমন কথা বলেন।
এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জে গণপরিবহন বন্ধ থকালেও শনিবারও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-বরিশাল, নাটোর, পাবনা, পঞ্চগড়সহ বিভিন্ন রুটে বিআরটিসি চলাচল করেছে। এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ বিআরটিসি বাস কাউন্টারের টিকেট মাস্টার মো. সানাউল্লাহ সানু।
সোনামসজিদ পানামা পোর্ট লিংক লিমিটেডের পোর্ট ম্যানেজার মাইনুল ইসলাম বলেন- দেশের অভ্যন্তরে পণ্য নেয়ার জন্য আজ (গতকাল) শনিবার ১২৬টি ট্রাকে লোড করা হয়েছে। তবে ট্রাকগুলো ছেড়ে যাবে কিনা তা তিনি বলতে পারেননি।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের মাস্টার (গ্রেড-৪) ওবায়দুল হক জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশন থেকে আন্তঃনগর বনলতা এক্সপ্রেসসহ মেইল ট্রেনগুলো যথাসময়ে চলাচল করছে। তবে যাত্রীর ভিড় অন্য দিনের তুলনায় খুব বেশি।
পূর্বঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত শুক্রবার ভোর ৬টা থেকে এ ধর্মঘট শুরু হয়। এর ফলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-ঢাকা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-নওগাঁ রুটসহ জেলার সকল রুটে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রাখা হয়। বন্ধ রয়েছে পণ্যবাহী ট্রাক, ট্যাংকলরি ও কাভার্ডভ্যানও। এমন কি পেট্রোলচালিত মাইক্রোবাসও বন্ধ রয়েছে।