নিশ্চিত জয়ের জন্য মাঠে নামছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড

4

শেষ দিনে সামান্য উত্তেজনা ছড়ানোর পর ড্র’তে শেষ হয়েছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ইংল্যান্ডের মধ্যকার প্রথম টেস্ট। তবে দ্বিতীয় টেস্টে নিশ্চিত জয়ের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামছে দু’দল। আগামীকাল বার্বাডোজে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে নামছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ইংল্যান্ড। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায়। সাম্প্রতি পারফরমেন্সের বিচারে ব্যাকফুটে থেকেই টেস্ট সিরিজ শুরু করেছিলো দুই দল ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় বিশ^ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ২টি করে সিরিজ খেললেও, কোন জয় ছিলো না তাদের। তবে প্রথম সিরিজ জয়ের লক্ষ্যে লড়াই শুরু করেছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড। এন্টিগায় প্রথম টেস্টে পাল্লা দিয়ে লড়াই করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড। কোন সেশনে পিছিয়ে পড়লেও, লড়াইয়ে ফেরার মানসিকতা দেখিয়েছে দু’দলই।
টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৪৮ রানেই ৪ উইকেট হারিয়েছিলো ইংল্যান্ড। তবে পরবর্তীতে জনি বেয়ারস্টোর ১৪০ রানের সুবাদে ৩১১ রানের মত স্কোর করে ইংলিশরা। জবাবে ইংল্যান্ডের ৩১১ রানের স্কোরকে টপকে যেতে লড়াই করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাতে সফলও হয়েছে তারা। এনক্রুমার বোনারের ১২৩ রানের কল্যাণে ৩৭৫ রান তুলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এতে প্রথম ইনিংস থেকে ৬৪ রানের লিড পায় ক্যারিবীয়রা। প্রথম ইনিংসে ব্যর্থ হলেও, দ্বিতীয় ইনিংসে জ¦লে উঠে ইংল্যান্ডের টপ-অর্ডার। জ্যাক ক্রলি ১২১ ও অধিনায়ক জো রুট ১০৯ রান করেন। ৬ উইকেটে ৩৪৯ রানে ইনিংস ঘোষনা করে ইংল্যান্ড।

এতে ৭১ ওভারে ২৮৬ রানের জয়ের লক্ষ্যমাত্রা পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৩৫ ওভারে ৬৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদেই পড়ে ক্যারিবীয়রা। আর এতেই ম্যাচটি রোমাঞ্চের ইঙ্গিত দেয়। পঞ্চম উইকেটে ২১৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হার থেকে রক্ষা করেন বোনার ও হোল্ডার। তাদের দৃঢ়তায় ম্যাচটি ড্র হয়। প্রথম ইনিংসেও ২১৫ বল খেলেছিলেন তারা। ম্যাচ ড্র হওয়ায় খুশি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ডের দুই অধিনায়ক। তবে ড্র’র ম্যাচ থেকে অভিজ্ঞতা অর্জন করে দ্বিতীয় টেস্টে জিততে চান দু’জনই। ক্যারিবীয় অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট বলেন, ‘দল হিসেবে প্রথম টেস্টে খেলেছি আমরা। প্রয়োজনের সময়ে ব্যাটাররা রান করেছে। বোলাররাও ভালো করেছে। ইংল্যান্ডের উপর চাপ সৃষ্টি করেছে ব্যাটার-বোলাররা। আশা করছি, দ্বিতীয় টেস্টে আরও ভালো কিছু সম্ভব হবে। জয়ের জন্যই আমরা মাঠে নামবো।’ ইংল্যান্ডের দলনেতা জো রুট বলেন, ‘ম্যাচটি ড্র হলেও, ক্রিকেটারদের মধ্যে লড়াই করার মানসিকতা ছিলো।

কোন সেশনে পিছিয়ে পড়লেও, আমরা লড়াই করেছি, হাল ছাড়িনি। এই মানসিকতা অব্যাহত রেখে পরের ম্যাচেই জিততেই চাই। ম্যাচ জয়ের জন্য মুখিয়ে আছে সকলে।’ তবে দ্বিতীয় টেস্টের আগে দুঃসংবাদ পেয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথম ম্যাচে স্লো ওভার রেটের কারণে ম্যাচ ফির ৪০ শতাংশ ও আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের টেবিল থেকে ক্যারিবীয়দের ২ পয়েন্ট কাটা হয়েছে। এতে পয়েন্ট টেবিলে জয়ের শতকরা হিসেবে বাংলাদেশের নীচে নেমে পড়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৪ ম্যাচে ১২ পয়েন্টের সাথে জয়ের শতকরা হিসেবে ২৫ দশমিক ০০ বাংলাদেশের।

আর ৫ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট থাকলেও, জয়ের শতকরা হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পয়েন্ট এখন ২৩ দশমিক ৩৩। আর পয়েন্ট টেবিলের শেষ দল হিসেবে আছে ইংল্যান্ড। ১১ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট তাদের। জয়ের শতকরা হিসেবে ইংলিশদের পয়েন্ট ১১ দশমিক ৬৭। পয়েন্ট টেবিলের দুঃসংবাদ আগে থেকেই সঙ্গী ইংল্যান্ডের। তবে দ্বিতীয় টেস্টের আগে ধাক্কা খেয়েছে ইংলিশরা। প্রথম টেস্টে পাওয়া কনুইয়ের ইনজুরির কারণে দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে পারবেন না পেসার মার্ক উড। তার জায়গা একাদশে খেলবেন ওলি রবিনসন। অন্য দিকে প্রথম টেস্টের স্কোয়াড বহাল রেখেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টেস্ট ফরম্যাটে ১৬১টি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড। এরমধ্যে ৫৮টি জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৫১টিতে জয় পায় ইংল্যান্ড। ৫২টি ম্যাচ ড্র হয়।
ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল : ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট (অধিনায়ক), জার্মেইন ব্ল্যাকউড (সহ-অধিনায়ক), এনক্রুমার বোনার, শামার ব্রুকস, জন ক্যাম্পবেল, জশুয়া দা সিলভা (উইকেটরক্ষক), জেসন হোল্ডার, আলজারি জোসেফ, কাইল মায়ার্স, ভিরাসামি পারমল, এন্ডারসন ফিলিপ, কেমার রোচ ও জেইডেন সিলেস।
ইংল্যান্ড দল : জো রুট (অধিনায়ক), জনি বেয়ারস্টো, জ্যাক ক্রলি, ওলি পোপ, সাকিব মাহমুদ, অ্যালেক্স লিস, বেন ফোকস, মার্ক উড, ক্রিস ওকস, ম্যাথু পারকিনসন, ওলি