নিরাপদে মোটরসাইকেল চালালে ঘরে ফিরবেন নিরাপদে : প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে বক্তাদের অভিমত

32

ট্রাফিক ও সাইন মেনে নিরাপদে মোটরসাইকেল চালাবেন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বেপরোয়া গতিতে চালাবেন না। হেলমেট মাথায় দিয়ে গাড়ি চালাবেন। একের অধিক আরোহী বহন করবেন না। অল্পবয়সী সন্তানদের মোটরসাইকেল নিয়ে রাস্তায় বেরোতে দেবেন না, কারণ মোটর সড়ক দুর্ঘটনার অধিকাংশই মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা, মারাও যাচ্ছে উঠতি বয়সী ছেলেরা। দূরপাল্লায় মোটরসাইকেল চালাবেন না। মনে রাখবেন, আপনাদের ওপর আপনাদের পরিবার নির্ভরশীল। তাই নিরাপদে মোটরসাইকেল চালিয়ে কাজ শেষে নিরাপদে ঘরে ফিরবেন।
বুধবার শিশির হোন্ডা আয়োজিত নিরাপদে মোটরসাইকেল চালানো প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে বক্তারা এভাবেই চালকদের উদ্দেশ্যে কথাগুলো বলেন। নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজ মাঠে এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।
‘রাইড স্মার্ট’, ‘রাইড সেফ অ্যান্ড রাইড উইথ রেসপেক্ট’, ‘কিল ইওর স্পিড সেফ ইওর ফ্যামিলি’- এমন সব স্লোগানকে সামনে রেখে আয়োজিত প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. শংকর কুমার কুণ্ডু । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ), চাঁপাইনবাবগঞ্জ সার্কেলের সহকারী পরিচালক মো. শাহ জামান হক, ট্রাফিক সার্জেন্ট মো. আনিসুজ্জামান, বিআরটিএ’র মোটরযান পরিদর্শক সেলিম আহসান, মেকানিক্যাল অ্যাসিস্টেন্ট আবু হুজাইফা, শিশির হোন্ডা’র প্রোপ্রাইটর মো. সারোয়ার মুর্শেদ শিশিরসহ অন্যরা।
প্রশিক্ষণে নারীসহ ৮০ জন মোটরসাইকেল চালক অংশগ্রহণ করেন। শেষে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে পুরস্কার ও উপহার প্রদান করা হয়।