দৈনিক গৌড় বাংলা

মঙ্গলবার, ২৮শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২০শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

নিয়ামতপুর উপজেলা নির্বাচন
চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য প্রার্থীরা মাঠে

আগামী ২১ মে দ্বিতীয় ধাপে নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলা পরিষদের ভোট অনুষ্ঠিত হবে। তফসিল ঘোষণার পর থেকেই নির্বাচনকে ঘিরে সম্ভাব্য প্রার্থীরা গণসংযোগ, মতবিনিময়, পোস্টার ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন।
সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে চলছে গ্রামে-গঞ্জে, হাটে-বাজারে, চায়ের দোকানে আলাপ-আলোচনা ও বিশ্লেষণ। প্রার্থীরাও ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে দোয়া ও সমর্থন চায়ছেন।
এরই মধ্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতা চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ার জানান দিয়েছেন। সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেনÑ বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ফরিদ আহম্মেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহিদ হাসান বিপ্লব, ভাবিচা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ভাবিচা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ওবাইদুল হক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ঈশ্বর চন্দ্র বর্মন, নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক আবেদ হাসান মিলন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ফরিদ আহম্মেদ দীর্ঘ পাঁচ বছর এলাকার জনগণের সেবা করছেন। তিনি বলেন, আবারো আমি নির্বাচন করতে চাই। এলাকায় আমি গণসংযোগ ও মতবিনিময় করছি। জনগণ ভালো সাড়া দিচ্ছেন। সুখে-দুঃখে মানুষের পাশে থেকে সেবা করছি। ইনশাআল্লাহ আবারো জনগণ আমাকে নির্বাচিত করবে।
৮নং বাহাদুরপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমি উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হতে চাই। আমি সেই লক্ষে কাজ করে যাচ্ছি। আমার জনসমর্থন আছে। আমি আছি, থাকব।
আরেক বর্ষিয়ান নেতা বিশিষ্ট সমাজসেবক উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ঈশ্বর চন্দ্র বর্মন বলেন, আমি এলাকায় গণসংযোগ করে জনগণের কাছে দোয়া ও সমর্থন চাচ্ছি।
আরেক নেতা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা ও বর্তমান নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক আবেদ হোসেন মিলন বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শে ও শেখ হাসিনার দেখানো পথে এই উপজেলাকে স্মার্ট এবং দুর্নীতিমুক্ত সমাজ ও জনগণের অধিকার নিশ্চিত করতে চাই।
ভাবিচা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ওবাইদুল হক বলেন, পোস্টার দেওয়ার পাশাপাশি আমি গণসংযোগ করছি। জনগণ আমাকে চাচ্ছেন। সেই লক্ষেই আমি কাজ করছি।
উপজেলায় বিভিন্ন এলাকার সাধারণ জনগণের সাথে আলোচনা করে জানা যায়, এবারের নির্বাচনে দলীয় প্রতীক না থাকায় নির্বাচনী মাঠ জমে উঠেছে এবং প্রার্থীদের সংখ্যাও বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

About The Author

This will close in 0 seconds