দৈনিক গৌড় বাংলা

মঙ্গলবার, ২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

নিজের ভুলকেই দায় দিলেন ম্যান সিটি কোচ

অজুহাত তেমন কিছু নেই। দলের কারও দিকে আঙুল তোলার ব্যাপারও নেই। পেপ গুয়ার্দিওলা বরং কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন নিজেকেই। এফএ কাপের ফাইনালে হারার পর ম্যানচেস্টার সিটি কোচ অকপটে বললেন, তার পরিকল্পনার ভুলেই ফাইনালে ভুগতে হয়েছে দলকে। এই ফাইনালে পরিস্কার ফেভারিট হয়েই মাঠে নেমেছিল ম্যানচেস্টার সিটি। কিন্তু মাঠের ফুটবলে তারা পেরে ওঠেনি নগর প্রতিদ্বন্দ্বিদের সঙ্গে। মৌসুমজুড়ে ধুঁকতে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড শনিবার ট্রফি জিতে নিয়েছে ২-১ গোলের জয়ে। ম্যানচেস্টার সিটির ম্যাচে বল পায়ে রাখার লড়াইয়ে তাদেরকে পেছনে ফেলা বিরল ব্যাপার। এই ম্যাচেও ৭৪ শতাংশ সময় বল ছিল তাদের কাছেই। কিন্তু আসল কাজটি করেছে প্রতিপক্ষ। ম্যাচ শেষে সেই দায় নিতে একদমই কুণ্ঠাবোধ করলেন না গুয়ার্দিওলা। “আমার সিদ্ধান্তের কারণেই আমরা আক্রমণে সঠিক জায়গায় থাকতে পারিনি। আমার ভুল। আমার পরিকল্পনা ভালো ছিল না। ট্যাকটিক্যালি এটা যথেষ্ট ভালো ছিল না। আমি আজকে যথেষ্ট ভালো ছিলাম না।” প্রথমার্ধের ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে কয়েকটি পরিবর্তন আনেন গুয়ার্দিওলা। ৫৬ মিনিটেই উঠিয়ে নেন কেভিন ডে ব্রুইনেকে। খেলার ধারও বেশ বেড়ে যায় এই অর্ধে। কিন্তু গোল দুটি তারা শেষ করতে পারেনি। ৮৭তম মিনিটে একটি গোল করতে পারলেও তা যথেষ্ট হয়নি। সেই ব্যর্থতার কথাও বলছেন গুয়ার্দিওলা। “ভিন্ন ভিন্ন প্রতিপক্ষের জন্য পরিকল্পনাও ভিন্ন থাকে। আজকেরটা কাজে লাগেনি। এরপরও অবশ্য আমরা দুই-তিনবার সম্ভাবনা জাগিয়েছি, কিন্তু ক্রসগুলো কাজে লাগাতে পারিনি। তারা একটি শটেই একটিই কাজে লাগিয়েছে, পরে মেইনু গোল করেছে। এই তো, আর কিছু করেনি।” “ইউনাইটেডের বিপক্ষে যখনই খেলেছি, সবসময় আমরা নিয়ন্ত্রণ করেছি। আজকে দ্বিতীয়ার্ধেও করেছি। এই অর্ধে অনেক অনেক ভালো খেলেছি আমরা। তাড়না বেশি ছিল। ২-০তে পিছিয়ে থাকার পর এটা করতেই হতো। কিন্তু আসল কাজটি করতে পারিনি।” প্রশ্ন উঠছে ম্যানচেস্টার সিটির প্রস্তুতি নিয়েও। গত রোববার লিগ শিরোপা জয়ের পর ফুটবলারদের দুই দিনের ছুটি দিয়েছিলেন কোচ। দল অনুশীলনে ফেরে বুধবার। মনোযোগ ও প্রস্তুতি পর্যাপ্ত ছিল কি না, এই প্রশ্ন তাই উঠল। কোচ অবশ্য এটাকে পাত্তা দিলেন না। বরং নতুন মৌসুমে নতুন করে শুরুর প্রত্যয় শোনালেন। “মোটেও নয় (প্রস্তুতির ঘাটতি)ৃ বরং উল্টোটা ছিল। তারা পুরোপুরি মনোযোগী ছিল এবং যেভাবে সাড়া দিয়েছে, তা দারুণ। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে অভিনন্দন এফএ কাপ জয়ের জন্য। তবে আমার পরিকল্পনা ভালো ছিল না।” “আজকে আমরা হতাশ। ফাইনালে হারলে হতাশ হওয়াটাই স্বাভাবিক। তবে সবগুলি ট্রফির জন্য আমরা যেভাবে লড়াই করেছি এবং ইতিবাচত থেকেছি, তা অসাধারণ। এখন আমরা বিশ্রাম নেব এবং পরের মৌসুমে দারুণভাবে ফিরব।”

About The Author