নারীরা পূরুষের পাশাপাশি সমানভাবে এগিয়ে যাচ্ছে: আব্দুল ওদুদ এমপি

83

নারীরা পূরুষের পাশাপাশি সমানভাবে এগিয়ে যাচ্ছে: আব্দুল ওদুদ এমপি

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ বলেছেন, নারীরা আজ সকল ক্ষেত্রে পূরুষের পাশাপাশি সমানভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু একটি গোষ্ঠী পরিকল্পিতভাবে নারীদের আদিম যুগে রাখতে চায়ছে। তারা আধুনিক প্রযুক্তির সাথে নারীদের সম্পৃক্ত হতে দিতে চায়না। রবিবার বিকেলে নবাবগঞ্জ ক্লাব মিলনায়তনে জেলা জাতীয় মহিলা সংস্থা আয়োজিত কম্পিউটারে প্রশিক্ষণগ্রহণকারী নারীদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। আব্দুল ওদুদ আরো বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সোনার বাংলা গড়ার স্বাপ্ন বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধুর কন্যা দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের সকল ক্ষেত্রে উন্নয়ন হচ্ছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চাঁপাইনবাবগঞ্জের জন্য অনেক কিছু করেছেন। যে চরের লাখ লাখ মানুষের কথা কেউ কোন দিন ভাবেনি, সেই অবহেলিত চরবাসীর জন্য তিনি শেখ হাসিনা সেতু করে দিয়েছেন। সদর হাসপাতালকে ১০০ শয্যা থেকে ২৫০ শয্যায় উন্নীত করে দিয়েছেন। নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজ, বীর শ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। চক্ষু হাসপাতাল, যুব উন্নয়ন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, বীনা উপ কেন্দ্র, বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র, আন্ত:নগর ট্রেন সার্ভিসসহ আরো অনেক বড়বড় উন্নয়ন তিনি করে দিয়েছেন। প্রধান শেখ হাসিনা আরো করে দেবেন। এত কিছুর পরও নারীরা বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ভোট দেয়। আব্দুল ওদুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করেন, সকালে কোরআন তেলাওয়াত না করে তিনি বের হন না। অথচ জামায়াত বিএনপি বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইসলামে বিশ্বাস করেনা। কম্পিউটারে প্রশিক্ষণগ্রহণকারী নারী শিক্ষার্থীদের তিনি আধুনিক শিক্ষা গ্রহণ করে নিজের জন্য এবং দেশের জন্য কাজে লাগিয়ে দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখার আহবান জানান।
জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট ইয়াসমিন সুলতানা রুমার সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর কবীর, শিক্ষা বিদ মর্জিনা হক। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাবেক উপজেলা নারী ভাইস চেয়ারম্যান সান্তনা হক, নাজমা খাতুন, হুমাইরা নাজনীন।
মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধিন জেলা ভিত্তিক কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রকল্প (৬৪ জেলা)-এর আওতায় ২০১৪ শিক্ষা বর্ষে জুলাই থেকে ডিসেম্বর) ২৯ জন নারী প্রশিক্ষণার্থী কম্পিউটার এ্যাপ্লিকেশন কোর্স সম্পন্ন করেন। জেলা জাতীয় মহিলা সংস্থা এই প্রশিক্ষণের আয়োহন করে। রবিবার আলোচনা শেষে ২৯ জন প্রশিক্ষিত নারীকে সনদপত্র প্রদান করা হয়।