নারীপ্রধান গল্পের কাজ এত কম কেন : মম

4

বছরটা কেমন গেল এমন প্রশ্ন করতেই জাকিয়া বারী মম বললেন, ‘বেশ ভালো।’ নিজের কাজের পরিধি কমিয়ে দিয়েছেন … এরকম খবর ঘুরে বেড়িয়েছে বিভিন্ন গণমাধ্যমে। এ প্রসঙ্গে মম বলেন, ‘দেখুন এখন গণমাধ্যমে ঐ একটি খবর কোথাও প্রকাশ পেলে … ঘুরে ফিরে একই কথা প্রকাশ পেতে থাকে। তবে কম কাজ বেশি কাজের মাপকাঠি কী? এটা কে নির্ধারণ করে? আমি মনে করি এটা একটা অনর্থক বার্তা! আমার যখন যেটা ভালো মনে হবে সেভাবেই তো কাজ করবো। একজন শিল্পী তো সেভাবেই কাজ করে। যেমন ২০২৩-এ বেশ কিছু ওটিটির কাজ করলাম। যার রেসপন্স খুব ভালো পেয়েছি। এখন ঘুরে ফিরে একই ছকে তো আমি কখনোই কাজ করিনি। করতেও চাই না।’ তবে ২০২৩-এ মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক দু’টি ছবির প্রধান চরিত্রে কাজ করেছেন।

একটি অনন্য মামুনের রেডিও, অন্যটি খিজির হায়াত খানের ‘ওরা ৭ জন’। দু’টি ছবি থেকে ওরা ৭ জনকেই এগিয়ে রাখেন এই অভিনেত্রী। মম’র মতে একটি মুভির সকল অ্যারেঞ্জমেন্ট, এর গল্প বলার ঢং সবকিছু মিলিয়ে খিজির হায়াত ভাইয়ের কাজটিকেই এগিয়ে রাখব। তবে রেডিও প্লটটা ভালো ছিল … কিন্তু এই ছবিটি আরো ভালো কিছু হতে পারতো।’ নতুন বছরের কোনো নতুন পরিকল্পনা আছে কি না এমন প্রশ্নে মম বলেন, ‘নিজের ভালো লাগার কিছু কাজ করা।’ নারীপ্রধান কোনো গল্পে কাজ করতে চাই। দেশের এত বছরেও আমরা এখন অব্দি অধিকাংশ ছবি পুরুষ চরিত্রের অ্যাঙ্গেল থেকেই ভাবলাম। নারীপ্রধান গল্পের কাজ কেন এত কম।

এর চেয়ে দুঃখজনক আর কিছু হতে পারে না।’ জাকিয়া বারী মম নিজের এই ম্যাচিউরড সময়ে শোবিজ নিয়ে আরো একটি বিষয়ে আলো ফেলতে চান-তা হলো পারিশ্রমিক নিয়ে। নাটক, ওয়েব ফিল্ম বা চলচ্চিত্র সবক্ষেত্রেই আমাদের ছেলেদের চেয়ে মেয়েদের পারিশ্রমিক অনেক কম। দীর্ঘদিন ধরেই এই বৈষম্য চলে আসছে এবং এটা নিয়ে আমরা কেউ কিছু বলছিও না, যেন ব্যাপারটা খুবই স্বাভাবিক। আমার মতে এরও পরিবর্তন হওয়া উচিত। নতুন বছরে নতুন চলচ্চিত্রে দেখা যাবে কি না জানতে চাইলে মম বলেন, ‘চলচ্চিত্রসহ অন্যান্য মাধ্যমেও কাজ আসবে। তবে অবশ্যই নিজের রুচি ও কাজের মান অনুযায়ীই কাজ করতে চাই।’ নিজের ক্যারিয়ারের এই পরিণত সময়ে এখনো মম দেশে বা দেশের বাইরে কোথাও গেলে তার সুপারহিট ‘ছুঁয়ে দিলে মন’ ছবিটির প্রশংসা শুনতে পান। মম’র কথায় এত বছর আগের একটি ছবি নিয়ে এখনো মানুষ কথা বলে, এটাই একজন শিল্পীর ভালো লাগার জায়গা।’